যে কারণে কাজু বাদাম খাবেন

Print

অন্যান্য বাদামের চেয়ে কাজু বাদাম স্বাস্থ্যের জন্য বেশি উপকারী । স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা বলেন, কাজু বাদামে প্রোটিন, ভিটামিন-ই, খনিজ পদার্থ এবং মনোআনস্যাচুরেটেড চর্বি থাকে। যা আমাদের হৃদপিণ্ডের স্বাস্থ্য ভালো রাখে।
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে সর্বশেষ গবেষণায় দেখা যায়, প্রতিদিন পরিমিত মাত্রায় কাজু বাদাম প্রাপ্ত বয়স্ক ও শিশুদের ডায়েটকে সমৃদ্ধ করে।
যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা খাদ্য ও কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে গবেষণারত শিক্ষার্থী আলিসা বার্নস বলেন, কাজু বাদাম উদ্ভিদ প্রোটিনের ভালো একটি উৎস। তাছাড়া, ফ্যাটি অ্যাসিড, ভিটামিন-ই এবং ম্যাগনেসিয়াম রয়েছে কাজু বাদামে।
১৪ সপ্তাহের গবেষণায় চিকিৎসা বিজ্ঞানীরা ২৯ জোড়া পিতামাতা এবং শিশুদেরকে প্রতিদিন কাজু বাদাম খেতে দেয়া হয়। প্রাপ্তবয়স্ক মায়েদের গড় বয়স ছিল ৩৫। আর তাদের সন্তানদের বয়স ছিল তিন থেকে ছয় বছর। শিশুদেরকে প্রতিদিন ১৪ গ্রাম কাজু বাদাম খেতে উৎসাহিত করা হয়। আর অভিভাবকদের প্রতিদিন ৪২ গ্রাম কাজু বাদাম খেতে দেয়া হয়। গবেষণায় অংশগ্রহণকারীরা কয়েক সপ্তাহ কাজু বাদাম খাওয়ার পাশাপাশি নিয়মিত খাবারও খান।
অ্যালিসা বার্নস বলেন, স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণের সূচক (হেলথি ইটিং ইনডেক্স-এইচইআই) ব্যবহার করে গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের খাদ্য মান পরিমাপ করা হয়। পিতা-মাতা এবং শিশুরা যখন কাজু বাদাম খেয়েছিলেন তাদের এইচইআইতে প্রোটিন খাবার, সামুদ্রিক এবং উদ্ভিদ প্রোটিন, ফ্যাটি অ্যাসিড বৃদ্ধি পেয়েছিল। এ সময় তারা অধিক পরিমাণে ভিটামিন-ই, এবং ম্যাগনেসিয়াম গ্রহণ করেছিল।
ফর্টিস-এসকর্ট হাসপাতালের প্রধান ক্লিনিক্যাল পুষ্টিবিদ ডা: রুপা দত্ত বলেন, কাজু বাদাম ভিজিয়ে বা শুকনো অবস্থায় খেতে পারেন। কাজু বাদাম রাতে ভিজিয়ে রাখলে বীজের মধ্যে অঙ্কুর প্রক্রিয়া শুরু হয়। এতে প্রোটিনের মাত্রা বৃদ্ধি পায়। স্ন্যাকের পরিবর্তে কাজু বাদাম খেতে পারেন। স্ন্যাকস শরীরে ক্যালোরি বাড়ায় আর কাজু বাদাম আপনার শরীরে পুষ্টি বাড়ায়।
রুপা দত্ত আরও বলেন, কাজু বাদামে অসম্পৃক্ত চর্বি, উচ্চ মানের উদ্ভিদ প্রোটিন, আঁশ, খনিজ পদার্থ, টোকোফেরল, ফাইটোস্টেরল এবং ফেনোলিক উপাদান রয়েছে। ক্লিনিক্যাল অনেক গবেষণায় দেখা যায়, কাজু বাদাম কার্ডিভ্যাসকুলারের বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করে। তাছাড়া, কাজু বাদাম ওজন, ক্যানসারের ঝুঁকি, প্রদাহ এবং উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 105 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ