যে কারনে আত্মহত্যা করেন জিয়া খান

Print
যে ১০টি ক্ষুদেবার্তা পড়ে আত্মহত্যা করেন জিয়া খান

বলিউড অভিনেত্রী জিয়া খান আত্মহত্যার সাড়ে তিন বছর পার হয়েছে। কিন্তু এ মৃত্যুরহস্যের এখনো কোনো কুলকিনারা করতে পারেনি গোয়েন্দা সংস্থাগুলি। জিয়া খানের মৃত্যুরহস্য উদঘাটনে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআইও হাত লাগিয়েছিল। কিন্তু সেভাবে কোনো ফল পাওয়া যায়নি।

সম্প্রতি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এবেলা এমন ১০টি ক্ষুদেবার্তা প্রকাশ করেছে যেগুলো আত্মহত্যা করার আগে প্রেমিকের কাছ থেকে পেয়েছিলেন জিয়া খান। বার্তাগুলো বেশ অস্বস্তিকর ছিল। তাই সম্পাদনার পর সেগুলো প্রকাশ করা হয়। ক্ষুদেবার্তাগুলি হুবহু তুলে দেয়া হল :

১. রাত ১০টা ৫৬: যদি কথা বলতে চাও, তা হলে ফোন করো।
২. রাত ১০টা ৫৬: তুমি চলে যাও।

৩. রাত ১০টা ৫৭: আমার জীবনকে তুমি জেলখানা করে তুলেছ। আমি কেবল ক… (কোনও বান্ধবীর নাম)-এর সঙ্গে খেতে যেতে চেয়েছিলাম, ন…(জিয়া ও সুরজের কমন বান্ধবীর নাম)-এর সঙ্গে দেখা করে ওকে তোমার নতুন অর্ডারটা দিতে চেয়েছিলাম। ইউ ফা** ক্রিপ, তুমি আমার বিশ্বস্ততা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করছ! আমরা এক সঙ্গে চলব কী করে ইফ ইউ ডু দিস শি*। আমি সব সময়ে তোমাকে অন্ধের মতো বিশ্বাস করি। দয়া করে আমাকে একা ছেড়ে দাও।

৪. রাত ১০টা ৫৭: ইউ ফা** ইট আপ ফর ইউ।
৫. রাত ১০টা ৫৮: আমি ভীষণ অসুখী।
৬. রাত ১১টা ০৩: তু‌মি ভাবছ, আমি তোমার সাফল্য দেখে ঈর্ষান্বিত! হা হা হা হা! তুমি অত্যন্ত অকৃতজ্ঞ।

৭. রাত ১১টা ০৩: ন…-এর সঙ্গে কথা বলো এবং নিজেই জেনে নাও ঠিক কী ঘটেছে। আমি বৃহস্পতিবার তোমাকে একটা সারপ্রাইজ দিতে চেয়েছিলাম। থ্যাঙ্কস ফর ফা** ইট আপ। সবটুকু সত্যি জানার পরেই আমার সঙ্গে কথা বলবে। তার আগে আমার সঙ্গে কথা বলার বিষয়ে স্বপ্নেও ভেবো না। তুমি আমার উপর নজর রাখলে কী ভাবে! ন…-এর সঙ্গে! দিস ইজ ফা** আপ!

৮. রাত ১১টা ০৮: যত দ্রুত সম্ভব আমাকে ফোন করো। ইটস আর্জেন্ট।
৯. রাত ১১টা ২১: আমাকে এক্ষুণি ফোন করো।
১০. রাত ১১টা ২১: যত তাড়াতাড়ি সম্ভব আমি তোমার সঙ্গে কথা বলতে চাই।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 172 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ