রাজধানীজুড়ে খোঁড়াখুঁড়ি দুর্ভোগ চরমে

Print

ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের বিভিন্ন স্থানে চলছে রাস্তা খোঁড়াখুঁড়ির কাজ। কোনো কোনো রাস্তা গত তিন মাসে তিনবার খনন করা হয়েছে। ফলে নগরীর মানুষের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছেছে। দুই সিটি করপোরেশন সূত্র জানিয়েছে, চলতি বছরে রাজধানীর দুই সিটি করপোরেশন এলাকার বেশির ভাগ সড়কে চলছে উন্নয়নকাজ। এর মধ্যে দক্ষিণ সিটি এলাকায় প্রায় দুই হাজার কোটি টাকার উন্নয়নকাজ চলছে। এ ছাড়া ওয়াসা, বিটিসিএল, তিতাস, ডেসকোসহ অন্যান্য সেবাদানকারী সংস্থা সড়কের নিচে থাকা সার্ভিস লাইন মেরামত করতে প্রতিনিয়ত রাস্তা কাটছে। এ বিষয়ে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন বলেন, ডিএসসিসি এলাকায় উন্নয়নকাজ চলছে। অন্য সেবা সংস্থাগুলোকে সমন্বয় করে কাজ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। খুব অল্প সময়ের মধ্যে উন্নয়নকাজের সমাপ্তি ঘটবে। রাজধানীর মালিবাগে একদিকে ফ্লাইওভারের নির্মাণকাজ, অন্যদিকে সেবা সংস্থার রাস্তা সংস্কারের কাজ চলছে। দুই উন্নয়নকাজে মালিবাগ একাকার রেলগেট থেকে শুরু করে চৌধুরীপাড়া পর্যন্ত সড়কে বছরের বেশির ভাগ সময়ই লেগে থাকে জলাবদ্ধতা। দুই বছর ধরেই বর্ষাকালের পাশাপাশি শীতকালেও একই চিত্র দেখা গেছে।

মগবাজার-মালিবাগ ফ্লাইওভারের মালিবাগ রেলগেট অংশের কাজে শুরু থেকেই এমন চিত্র দেখা গেছে। মালিবাগ রেলগেটে দেখা গেছে, রেলগেট থেকে সিনেমা হল পর্যন্ত সড়কের পশ্চিম পাশে জলাবদ্ধতা। অন্যদিকে রামপুরা ব্রিজ থেকে বনশ্রী রোডের দক্ষিণ পাশে চলছে ঢাকা ওয়াসার পানির লাইন বসানোর কাজ। ফলে এর প্রতিটি সড়ক যেন উল্টা অবস্থায় পড়ে আছে। কোথাও কোথাও সুয়ারেজ বা পানির লাইন কাটা পড়ায় পানি জমে জলাদ্ধতা সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে মাত্র তিন মাসের ব্যবধানে এ সড়ক খোঁড়াখুঁড়ি হয়েছে তিনবার। প্রতিবার একপক্ষ ক্ষতিগ্রস্ত রাস্তা মেরামত করে দেওয়ার পর আরেক পক্ষ এসে নতুন করে ‘উন্নয়নের’ জন্য ফের খোঁড়া শুরু করে। জানা যায়, গত বছরের নভেম্বর মাসে মগবাজার-মৌচাক ও মালিবাগের রাস্তা কেটে কাজ শুরু করে ঢাকা ওয়াসা। তারা সড়কের বিভিন্ন অংশে মোটা পাইপ বসায় এবং কাটা অংশে বালি দিয়ে অস্থায়ীভাবে মেরামত করে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 91 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ