রাজার রাজকীয় সেঞ্চুরিতে লঙ্কা-কাণ্ড!

Print

কলম্বো টেস্টে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ইতিহাসে প্রথমবারের মতো লিড নিয়েছিল জিম্বাবুয়ে। যদিও সেই লিডটা মাত্র ১০ রানের। তবে ভাঙাচোরা আফ্রিকান দেশটির টেস্ট দলের জন্য এই কীর্তিটাই বা কম কি! কিন্তু প্রথম ইনিংসে লিড নিয়েও দ্বিতীয় ইনংসে ধ্বংসস্তুপের মাঝে পড়ে সফরকারী জিম্বাবুয়ে। মাত্র ৫৯ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ফেলে তারা। সেখান থেকে সিকান্দার রাজার অকল্পনীয় ও অবিশ্বাস্য প্রতিরোধে ঘুরে দাঁড়ানো জিম্বাবুয়ের। রোববার যখন দ্বিতীয় ইনিংসে ৬ উইকেটে ২৫২ রান নিয়ে দিন শেষ করলো জিম্বাবুয়ে, রাজা তখন সেঞ্চুরি থেকে মাত্র ৩ রান দূরে। সোমবার সকালে চতুর্থ দিনের শুরুতেই রাজা তুলে নিলেন তার ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি। যেটি আক্ষরিক অর্থেই রাজকীয় এবং যার প্রভাবে বড় লিড নিয়ে ম্যাচটা নিজেদের হাতে নিয়ে জিম্বাবুয়ে লঙ্কা-কাণ্ড ঘটিয়ে দিয়েছে।
রাজার বীরত্বে লঙ্কায় রাজকীয় ভাবেই ঘুরে দাঁড়িয়েছে জিম্বাবুয়ে। এমন কি টেস্টের এখন যে চিত্র তাতে জয়ের স্বপ্নও দেখতে পরে তারা। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত ৯ উইকেটে ৩৬৩ রান করেছে জিম্বাবুয়ে। লিড জমা পড়েছে ৩৭৩ রানের। গ্রায়েম ক্রেমার (৪২) ও এমপোফু (১) ব্যাট করছেন। এই ম্যাচ জিততে হলে ইতিহাস লিখতে হবে শ্রীলঙ্কাকে। নিজেদের মাটিতে সর্বোচ্চ ৩৫২ রানের লক্ষ্য তাড়া করে জয়ের রেকর্ড আছে লঙ্কানদের। ২০০৬ সালে প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে এই লক্ষ্য দাড়া করে জিতেছিল শ্রীলঙ্কা।

এবারের শ্রীলঙ্কা সফরটা ইতিহাস হয়েই থাকবে জিম্বাবুয়ের জন্য। ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে শ্রীলঙ্কাকে ৩-২ এ হারিয়ে ইতিহাস সৃষ্টি করেছে তারা। শেষ ওয়ানডেতে জয়ের নায়ক ছিলেন রাজাই। দুর্দান্ত বোলিং করে শ্রীলঙ্কাকে বেঁধে রেখেছিলেন ২০৩ রানের মধ্যে। এরপর জয়ের দিকে এগুতে থাকা দল যখন বিপদে পড়ে, তখন রাজাই তার ব্যাটে প্রশান্তি ছড়িয়েছেন। ছক্কা মেরে ম্যাচ শেষ করেছেন। সিরিজ জিতিয়েছেন।
সেদিন বোলিং আনসৃষ্টির পর ব্যাটিংয়ে যে প্রতিরোধ গড়েছিলেন, এই টেস্টের প্রতিরোধের সঙ্গে অবশ্য তার তুলনাই চলে না। এই গল্পটা আরো চমকদার। বর্ষীয়ান স্পিনার রঙ্গনা হেরাথ রীতিমতো ভয়ানক হয়ে উঠেছিলেন। প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট নেওয়ার পর দ্বিতীয় ইনিংসেও একে একে তুলে নিচ্ছিলেন উইকেট। রাজাকে ফিরিয়েই অবশ্যই হেরাথ দ্বিতীয় ইনিংসেও ৫ উইকেট পূরণ করেছেন। তবে তার আগে জয়ের স্বপ্ন দেখার মতো স্কোর জিম্বাবুয়ের স্কোর বোর্ডে যোগ করেছেন রাজা। ২০৫ বলে ৯ চার ও ১ ছয়ে ১২৭ রান করে অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হয়েছেন রাজা। ম্যালকম ওয়ালারের (৬৮) সাথে এদিন টেনে সপ্তম উইকেটে টেনে নিয়ে যাওয়া ১৪৪ রানের জুটিটা জিম্বাবুয়েকে স্বপ্ন দেখার পথ বড় করে দিয়েছে। তার আগে পিটার মুর করেছেন ৪০ রান।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 125 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
error: ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি