রাবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে আওয়ামীপন্থীদের একক জয়

Print

আহমেদ ফরিদ, রাবি প্রতিনিধি
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে সরকার সমর্থিত মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের হলুদ প্যানেল থেকে সভাপতি রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. নজরুল ইসলাম ও রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের ড. মো. রুহুল আমীন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। সভাপতি-সম্পাদকসহ ১৫ টি পদের সব ক’টিতে জয় লাভ করেছে আওয়ামীপন্থী প্রার্থীরা।

বৃহস্পতিবার সকাল ৮ টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের জুবেরী ভবনে এ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

বিশ্ববিদ্যালয় সূত্রে জানা যায়, নির্বাচনে পৃথক দুই প্যানেলে প্রতিদ্বন্দিতা করে। সরকার সমর্থিত মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজের হলুদ প্যানেল এবং বিএনপি ও জামায়াত সমর্থিত সাদা প্যানেলে প্রতিদ্বন্দিতা করেন।
পপুলেশন সায়েন্স এন্ড হিউম্যঅন রিসোর্স ডেভেলপমেন্ট বিভাগের অধ্যাপক নির্বাচন কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। নির্বাচন শেষে অধ্যাপক দিলীপ কুমার জানান, ৫৩৯ ভোট পেয়ে রসায়ন বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. নজরুল ইসলাম সভাপতি এবং ৫৫৪ ভোট পেয়ে রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. রুহুল আমিন সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। তাদের নিকটতম প্রতিদ্ব›দ্বী সাদা দলের পরিসংখ্যান বিভাগের অধ্যাপক মো. ছায়েদুর রহমান পান্নু সভাপতি পদে ৩৯৪ ভোট এবং ম্যানেজমেন্ট স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক এএনএম জাহাঙ্গীর কবীর সাধারণ সম্পাদক পদে ৩৬৮ ভোট পান।

অন্য পদে বিজয়ীরা হলেন- সহ-সভাপতি অধ্যাপক ড. স্বরোচিষ সরকার (৪৬৭), কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. আব্দুল গণি (৫২১), যুগ্ম-সম্পাদক সহযোগী অধ্যাপক ড. মো. ফারুক শাহ (৪৮৬)। এছাড়া কার্যকরী সদস্য পদে ড. মো. লুৎফর রহমান, ড. মো. আশরাফুল ইসলাম, মো. নূরে আলম সিদ্দিকী, মো. রফিকুল ইসলাম, আবুল বাশার মোহাম্মদ সারোয়ার আলম, ড. মো. খাইরুল আলম, মমতাজ পারভীন, সনজীব কুমার সাহা, মো. জাহিদুল ইসলাম, মোসা. জেসমিন সুলতানা বিজয়ী হয়েছেন।

এর আগে সকাল ৮টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের জুবেরি ভবনের শিক্ষক লাউঞ্জে ভোটগ্রহণ করা হয়। ১১৪৩ জন ভোটারের মধ্যে ৯৩৩ জন ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। গণনা শেষে সন্ধ্যা সোয়া ৬ টায় ফল ঘোষণা করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত বছরের ২৪ মার্চ রাবি শিক্ষক সমিতির নির্বাচনে আওয়ামীপন্থি হলুদ প্যানেল (মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও মূল্যবোধে বিশ্বাসী প্রগতিশীল শিক্ষক সমাজ) থেকে ড. মো. শহীদুল্লাহ সভাপতি ও অধ্যাপক ড. শাহ আজম শান্তনু সাধরণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছিলেন। শুধু সভাপতি-সাধরণ সম্পাদক নয় শিক্ষক সমিতির কার্যনির্বাহী ১৫টি পদের মধ্যে ১৪টিতেই জয়ী হয়েছেন আওয়ামীপন্থী শিক্ষকরা। বাকি একটি পদে নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপিপন্থি শিক্ষক।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 3319 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ