রিয়াদকে দেশে পাঠানোর সিদ্ধান্তে ‘কানাঘুষা’

Print

কী নির্মম! বাংলাদেশের শততম টেস্ট উদযাপন করতে যখন বিসিবির এক ঝাঁক কর্তাব্যক্তি মঙ্গলবার উড়ে যাচ্ছেন কলম্বোতে তখন বুকে ব্যথা আর রাজ্যের হতাশা নিয়ে দেশে ফিরে আসতে হচ্ছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদকে।

রিয়াদ অনেকদিন ধরেই টেস্টে ভালো করছেন না। কলম্বোতে শততম টেস্ট খেলার স্বপ্নটা বিবর্ণ হয়ে আসে গলেতে দুই ইনিংসে ব্যর্থ হবার পর। একজন বাদ পড়তেই পারেন একাদশ থেকে। কিন্তু তাই বলে তার মতো একজন সিনিয়র খেলোয়াড়কে আগেভাগেই দেশে পাঠিয়ে দেওয়া হবে?

সুজন বলেছেন তাকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। কিছুদিনের বিশ্রাম পেলে রিয়াদ ঠিক হয়ে যাবে- সুজনের এই ব্যাখ্যাটা ঠিক আছে। কিন্তু তাই বলে তাকে হঠাৎ দেশে পাঠিয়ে দিতে হবে? টেস্ট দলে তো ১৬ জন আছেন। তাদের মধ্যে একাদশে থাকবেন ১১ জন। বাকি ৫ জন তো দলের সঙ্গেই থাকতেন। রিয়াদের বেলায় ব্যতিক্রম হলো কেন? বাজে ফর্মের সঙ্গে কী তাহলে আরো অন্য কারণ আছে? এই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। এবং তা সঙ্গত কারণেই।

কী সেই  অন্য কারণ বা ঘটনা? জানা না গেলেও ব্যাপারটা নিয়ে বেশ কানাঘুষা শুরু হয়েছে ঢাকার ক্রিকেট পাড়ায়। অনেকই বলছেন, এভাবে সিরিজের মাঝপথে একজন সিনিয়র খেলোয়াড়কে দেশে পাঠিয়ে ঠিক করেনি টিম ম্যানেজমেন্ট।

ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজনের ব্যাখ্যাতেও সন্তুষ্ট হতে পারছেন না অনেকে। সুজন বলেছেন, ‘রিয়াদ আমার হাতে গড়া ক্রিকেটার। আমি ওকে খুব পছন্দ করি। কিন্তু দুঃসংবাদটা আমাকেই দিতে হলো। কিন্তু আমি মনে করি রিয়াদ আমাদের টি-টোয়েন্টি দলের অন্যতম সেরা খেলোয়াড়। নির্বাচকরা চাইলে সে টি-টোয়েন্টি সিরিজে ফিরতে পারে। এমনকি ওয়ানডে সিরিজেও।’

কিন্তু টি-টোয়েন্টি ও ওয়ানডে সিরিজে যদি তাকে বিবেচনায় রাখাই হবে তাহলে এ কদিনের জন্য তাকে দেশে পাঠিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত কেন? আজ কালের মধ্যেই তো ওয়ানডে দল ঘোষণা করা হবে। দুই চার দিনের মধ্যেই তো শ্রীলঙ্কা যাবেন মাশরাফিসহ বাদ বাকিরা।

কাজেই সুজনের যুক্তি অনেকের আছেই গ্রহণযোগ্য মনে হচ্ছে না। রিয়াদকে দেশে পাঠানোর আরেকটা যুক্তি দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের ম্যানেজার। শততম টেস্টে রিয়াদকে বিব্রতকর অবস্থায় না ফেলতেই নাকি তাকে পাঠিয়ে দেওয়া হচ্ছে। সুজন বলেন, ‘সে আমাদের অন্যতম সিনিয়র খেলোয়াড়। এখানে শততম টেস্ট হবে, যেখানে জুনিয়ররা খেলবে আর ও চেয়ে চেয়ে দেখবে এটা ওর জন্য অসম্মানের। তার কষ্টও লাগবে। তাই আমরা সিদ্ধান্ত নিয়েছি রিয়াদকে দেশে পাঠানোর।’

কিন্তু শততম টেস্ট উপলক্ষে রিয়াদের বিশেষ ব্লেজারের কী হবে? কলম্বোর একটি নামকরা টেইলার্সে টেস্ট দলের ১৬ জনের জন্য নীল রঙের বিশেষ ব্লেজারের অর্ডার দিয়েছে বিসিবি। টেস্ট শুরু হবে বুধবার ওইদিন সকালে ১৬ খেলোয়াদের গায়ে পরিয়ে দেওয়া হবে ওই ব্লেজার। কিন্তু রিয়াদ দেশে ফিরছেন তার একদিন আগেই। দুঃসংবাদটা রিয়াদকে দুদিন পরে জানালেও তো হতো। অনেকেরই মত এটা। এখন রিয়াদের ব্লেজারের কী হবে?

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 68 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ