রুবেলের ৫ উইকেট মোস্তাফিজের ২

Print

সবার চোখ ছিল কাটার মাস্টার মোস্তাফিুজর রহমানের দিকে। দুই বছর পর ফার্স্ট ক্লাস ক্রিকেটে ফিরে প্রথম বলেই উইকেট নিয়েছেন ‘দ্য ফিজ’। কিন্তু রোববার সিলেট বিভাগীয় স্টেডিয়ামে তার সতীর্থ পেসার রুবেল হোসেন কেড়ে নিলেন অনেকটা আলো। মোস্তাফিজের মতো তিনিও নিউজিল্যান্ড সফরের পর বাংলাদেশ ক্রিকেট লিগে (বিসিএল)প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেছেন। প্রাইম ব্যাংক সাউথ জোনের হয়ে ইসলামী ব্যাংক ইস্ট জোনের প্রথম ইনিংস ১৪৪ রানেই গুটিয়ে দিয়েছেন রুবেল-মোস্তাফিজ। রুবেল নিয়েছেন ৫ উইকেট। ২ উইকেট মোস্তাফিজের।
রোববার ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে ৪০৩ রানে সাউথ জোনের প্রথম ইনিংস শেষ হয়। তারপর নতুন বলে মোস্তাফিজ ও রুবেল জুটি বেধে ধসিয়ে দিয়েছেন ইস্ট জোনকে। ২৫৯ রানে পিছিয়ে থেকে শেষ হয়েছে তাদের ইনিংস। ফলো অনে পড়ে আবার ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখোমুখি হয়েছে ইস্ট জোন। প্রথম ইনিংসে ভিন্ন অ্যাকশনের পেসার রুবেল ১০ ওভারে ২ মেডেনে ২২ রানে ৫ উইকেট নিয়েছেন। ফার্স্ট ক্লাস ক্যারিয়ারে এটা তার ইনিংসে তৃতীয়বার ৫ উইকেট শিকার। ৯ ওভারে ১ মেডেনে ৩২ রানে ২ উইকেট মোস্তাফিজের।

মোস্তাফিজের এখন ভারত সফরে বাংলাদেশ দলের সাথে থাকার কথা ছিল। কিন্তু ইনজুরি থেকে ফিরে আত্মবিশ্বাসহীনতায় ভুগছেন কাটার। তাই দেশে থেকে বিসিএলে খেলতে নামলেন। আর মাঠে ফিরে প্রথম বলেই উইকেট পেয়েছেন মোস্তাফিজ। শনিবার এই ম্যাচের প্রথম দিনের পুরোটা ব্যাট করল সাউথ জোন। মোস্তাফিজকে তাই বসে থাকতে হয়েছে। বল করা হয়নি। রোববার নতুন বলে ইনিংস ওপেন করলেন মোস্তাফিজ। প্রথমেই নো। কিন্তু ইনিংসে বৈধ প্রথম বলেই তিনি ক্লিন বোল্ড করে দিলেন ইস্ট জোনের ওপেনার ইরফান শুক্কুরকে ( ০)। ফিল্ডিং করতে নেমে প্রথম বলেই উইকেট পেয়ে মোস্তাফিজকে নিয়ে উৎসবে মাতে তার দল।
পরের উইকেটটি নিউজিল্যান্ড থেকে ফিরে প্রথম ম্যাচে নামা আরেক পেসার রুবেল হোসেনের। তবে সেখানেও মোস্তাফিজ। মেহেদী মারুফ (৫) আউট। মোস্তাফিজ ও রুবেল জুটির আক্রমণে দ্রুত পথ হারিয়েছে প্রতিপক্ষ। রুবেল দ্রুত ৩ উইকেট নিলেন। সোহাগ গাজী এক উইকেট পেলেন। তাতে ৩৮ রানে ৫ উইকেট হারানো দল ইস্ট জোন।
আবার আক্রমণে ফিরে ২১ বছরের বাঁহাতি পেসার মোস্তাফিজ বিপদ বাড়ান প্রতিপক্ষের। ইয়াসির আলী ও শাহানুর রহমানের জুটিটা ভেঙে দেন ৬৬ রানের সময়। এবার তার বলে শাহানুর (৯) ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। রুবেল ৩ উইকেট নেওয়ার পর আবার ফেরেন ৪৩তম ওভারে। ইস্ট জোনের তখন ৮ উইকেট নেই। ওই ওভারের শুরুতে টানা তিনটি নো বল রুবেলেন। কিন্তু ওভারের শেষ দুই বলে ২ উইকেট তুলে নিয়ে প্রতিপক্ষের ইনিংস গুটিয়ে দেন। সেই সাথে ইনিংসে আরেকবার ৫ উইকেট নিয়ে দলকে দারুণ অবস্থায় নেওয়ার উৎসবে মাতেন রুবেল।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 109 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ