লিভার পরিষ্কার করে যে খাবারগুলো!

Print

20

 

 

 

 

 

 

 

 

তিন পাউন্ড ওজনের আপনার যকৃৎ বা লিভার সারাদিন কী পরিমাণ কাজ করে তা আপনি কল্পনাও করতে পারবেন না। লিভার আমাদের দেহের দ্বিতীয় বৃহত্তম অঙ্গ এবং আমাদের স্বাস্থ্যগত কোন সমস্যা সৃষ্টি না হলে আমরা একে নিয়ে কোন চিন্তাই করিনা। লিভার প্রায়ই আমাদের শরীরের দ্বাররক্ষী হিসেবে কাজ করে। একজন হাউজ কিপারের মতোই আমাদের শরীরে যা কিছু ঢুকছে তা পরিষ্কার করা এবং শরীর থেকে বেরিয়ে যেতে সহযোগিতা করে লিভার। আপনি যেভাবে আপনার রান্না ঘরের নোংরা আবর্জনা ধুয়ে মুছে পরিষ্কার করেন লিভার ও ঠিক তেমনি আপনার শরীর থেকে পরিবেশ ও খাদ্যের বিষাক্ত উপাদান দূর করে।

আপনি আপনার শরীরে যা কিছুই দিচ্ছেন লিভারকে এর মোকাবেলা করতে হয়। যেমন- শর্করা, আমিষ ও চর্বিকে শক্তিতে রূপান্তরিত করা, হজমে সাহায্য করা, প্রতি মিনিটে সংবাহিত রক্তের ৩০% ব্যবহার করে কেমিক্যাল রি-অ্যাকশনের মাধ্যমে শরীর থেকে ক্ষতিকর টক্সিন বাহির করে দেয়া, প্রয়োজনীয় পুষ্টি সংরক্ষণ ও বিতরণ করা, আমিষ তৈরি করা এবং রক্তকে বিষমুক্ত করা বা খাদ্যের ক্ষতিকর উপাদান ও অ্যালকোহলের বিষাক্ততার মোকাবিলা করা ইত্যাদি। তাই আমাদেরকে সুস্থ রাখার জন্য কাজ করে যে লিভার তাঁকে সুস্থ রাখাটা প্রয়োজনীয়। আসুন তাহলে জেনে নেই এমন কিছু খাবারের কথা যেগুলো খেলে লিভার সুস্থ থাকার পাশাপাশি আমাদের সার্বিক স্বাস্থ্য ও ভাল থাকবে।

১। রসুন

রসুন অত্যন্ত কার্যকরী লিভার পরিষ্কারক যার মধ্যে প্রচুর এনজাইম থাকে এবং এই এনজাইম লিভার থেকে টক্সিন বাহির হতে সাহায্য। এছাড়াও রসুনে সেলেনিয়াম ও এলিসিন নামক উপাদান থাকে এবং এরাও লিভার থেকে টক্সিন বাহির হতে কার্যকরী ভূমিকা রাখে।

২। জাম্বুরা

জাম্বুরাতে উচ্চমাত্রার ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে যা লিভারের ন্যাচারাল ক্লিঞ্জিং প্রসেসকে বৃদ্ধি করে। ছোট সাইজের এক গ্লাস জাম্বুরার জুস লিভারের ডিটক্সিফিকেশন এনজাইমের উৎপাদন বৃদ্ধি করে যা কার্সিনোজেন এবং অন্যান্য টক্সিনকে পরিপূর্ণ ভাবে বাহির হয়ে যেতে সাহায্য করে।

৩। বিট ও গাজর

গাজর গ্লুটাথায়ন নামক প্রোটিনে সমৃদ্ধ যা লিভারকে বিষ মুক্ত হতে সাহায্য করে। গাজর ও বিট উভয়ের মধ্যেই উচ্চমাত্রার উদ্ভিজ ফ্লেভনয়েড ও বিটা ক্যারোটিন থাকে। বিট ও গাজর খেলে লিভারের কার্যকারিতা উদ্দীপিত হয় এবং লিভারের সার্বিক কাজের জন্য উপকারি।

৪। গ্রিনটি

গ্রিনটি হচ্ছে লিভার লাভিং বেভারেজ বা যকৃৎ প্রেমী পানীয়। গ্রিনটি উদ্ভিজ অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ক্যাটেচিন সমৃদ্ধ যা লিভারের কাজে সহযোগিতা করে। সুপেয় গ্রিনটি সার্বিক স্বাস্থ্যের জন্যই উপকারী।

৫। সবুজ শাক সবজি

সবুজ শাক সবজি শক্তিশালী লিভার পরিষ্কারক। সবুজ শাক সবজি কাঁচা, রান্না করে বা জুস হিসেবে খাওয়া যায়। সবুজ শাক সবজিতে অত্যন্ত উচ্চ মাত্রার ক্লোরোফিল থাকে এবং এরা রক্ত প্রবাহ থেকে পরিবেশগত বিষ শোষণ করে নেয়। সবুজ শাক সবজির সহজাত প্রবণতা আছে ভারী ধাতু, রাসায়নিক ও কীটনাশককে নিস্ক্রিয় করার। সবুজ শাক সবজি লিভারের জন্য শক্তিশালী প্রতিরক্ষা প্রদান করে।

এছাড়াও আপেল, অ্যাভোকাডো, ওলিভ অয়েল, লেবু, হলুদ, আখরোট, বাঁধাকপি, পেঁয়াজ, মসুর ডাল, মিষ্টি আলু, ব্রোকলি, টম্যাটো ইত্যাদি খাবার নিয়মিত খেলে লিভার পরিষ্কার থাকবে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 232 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ