শ্রেণিকক্ষে ছাত্রীকে যৌন হয়রানি শিক্ষকের!

Print

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে শ্রেণিকক্ষে ছাত্রীকে যৌন হয়রানির অভিযোগ উঠেছে। ফারসি ভাষা ও সাহিত্য বিভাগের ওই শিক্ষকের নাম ড. আবু মূসা মো. আরিফ বিল্লাহ। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে ওই শিক্ষককে ক্লাস, পরীক্ষা থেকে অব্যহতি দেওয়া হয়েছে। তবে অভিযুক্ত শিক্ষক বলছেন, ষড়যন্ত্রমূলকভাবে তার বিরুদ্ধে অভিযোগ আনা হয়েছে।
জানা যায়, শ্রেণিকক্ষে এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর আরিফ বিল্লাহ তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রীর পোশাক নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করেন। এতে ওই ছাত্রী গত ১০ অক্টোবর বিভাগীয় ছাত্র উপদেষ্টা মোহাম্মদ আহসানুল হাদী বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ করেন।

অভিযোগের বিষয়ে আরিফ বিল্লাহ জানান, শ্রেণিকক্ষেতো অনেক ছাত্র-ছাত্রী ক্লাস করেন। আমি তাকে নিয়ে কটূক্তি করলে ক্লাস প্রতিনিধিই অভিযোগ দিত। প্রতিহিংসাবশত এই অভিযোগ বলে তিনি দাবি করেন।
জানা যায়, আরিফ বিল্লাহ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রক্টর ও ফারসি ভাষা সাহিত্য বিভাগের প্রফেসর সাইফুল ইসলাম খানের বিরুদ্ধে অন্যের বই জালিয়াতি, গবেষণায় চৌর্যবৃত্তিসহ সাবেক ভিসি প্রফেসর ড. আ আ ম স আরেফিন সিদ্দিক বরাবর একাধিক অভিযোগ করেন। এমফিল জালিয়াতি হওয়ায় গত ১৬ আগস্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট সভায় সাইফুল ইসলাম খানকে সকল পরীক্ষা এবং থিসিস সুপারভাইজিং এর কার্যক্রম থেকে তিন বছরের জন্য অব্যাহতি দেওয়া হয়। এতে আরিফ বিল্লাহ সাইফুল ইসলাম খানের বিরাগভাজন হন।
অভিযোগের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার বিভাগের একাডেমিক কমিটি একটি জরুরি মিটিং আহ্বান করে। মিটিংয়ে আরিফ বিল্লাহ ছাত্রীকে যৌন হয়রানি করেছেন বলে অভিযোগ করা হয়। যদিও ছাত্র উপদেষ্টা প্রথমে কটূক্তি করেছেন বলে আরিফ বিল্লাহকে জানান। আরিফ বিল্লাহ তার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগের কপি চাইলেও তাকে দেওয়া হয়নি। যদিও অভিযুক্ত শিক্ষক তার বিরুদ্ধে কি অভিযোগ সেটা জানার অধিকার রাখেন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 127 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ