সংবাদ সরবরাহে সামাজিক মাধ্যমে এগিয়ে ফেসবুক, এরপরে ইউটিউব

Print

যুক্তরাষ্ট্রের দুই-তৃতীয়াংশ নাগরিক প্রতিদিনের খবরের জন্য সামাজিক মাধ্যমের ওপর নির্ভরশীল হয়েছে পড়েছেন। আর সংবাদ সরবরাহে শীর্ষে রয়েছে ফেসবুক। পিউ রিসার্চ সেন্টার পরিচালিত এক জরিপে এ তথ্য উঠে এসেছে। মূলধারার গণমাধ্যমগুলোর পাশাপাশি সামাজিক মাধ্যমে শেয়ার করা বিভিন্ন তথ্য ও সংবাদের উপরে তাদের নির্ভরশীলতা বাড়ছে।
শুধু যুক্তরাষ্ট্রেই না সারাবিশ্ব জুড়েই এই প্রবনতা এখন উর্দ্ধমুখি। ইন্টারনেটের সুবিধায় থাকার কারণে বিভিন্ন দেশের খবর পড়া, দেখা কিংবা শোনার সুযোগ সৃষ্টি হয়েছে। এ কাজ আরো সহজ করে তুলেছে সামাজিক যোগাযোগ সাইটগুলো।

পিউ রিসার্চ জরিপের তথ্যমতে, এ বছর বিভিন্ন খবরের জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ৬৭ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক নাগরিক ফেসবুক, টুইটার ও স্ন্যাপচ্যাটের মতো সামাজিক যোগাযোগ প্লাটফর্ম ব্যবহার করেছেন, যা আগের বছরে ছিল ৬২ শতাংশ। বর্তমানে দেশটির ৫০ বছরের চেয়ে বেশি বয়সী ৫৫ শতাংশ মানুষ সংবাদের জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ওপর নির্ভরশীল, যা ২০১৬ সালে ছিল ৪৫ শতাংশ। অন্যদিকে এ বছর কলেজ পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের মধ্যে এসব মাধ্যম ব্যবহার করে সংবাদ পাওয়ার হার গত বছরের তুলনায় কিছুটা কমেছে।
জরিপে আরও জানাগেছে, সামাজিক মাধ্যম হিসেবে সংবাদ সরবরাহে শীর্ষে রয়েছে ফেসবুক। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউব। এরপরে আছে টুইটার। জরিপে অংশ নেয়া দেশটির ৪৫ শতাংশ প্রাপ্তবয়স্ক মানুষ ফেসবুক, ১৮ শতাংশ ইউটিউব ও ১১ শতাংশ টুইটারের ওপর সংবাদের জন্য নির্ভর করেন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 82 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ