সবার মুখোশ খুলে দিতে চাই

Print

দীর্ঘদিন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন সংস্থার (বিএফডিসি) আঙিনায় দেখা যায়নি একসময়ের জনপ্রিয় নায়ক রিয়াজকে। ৫ মে অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচন সামনে রেখে নতুন করে এফডিসিতে যাতায়াত শুরু হয় তাঁর। এই নির্বাচনে সম্পাদক পরিষদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩২৮ ভোট পেয়ে সহসভাপতি পদে নির্বাচিত হয়েছেন তিনি। গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শিল্পী সমিতির নির্বাচন ও অন্যান্য প্রসঙ্গে কথা বলেন রিয়াজ।

চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নবনির্বাচিত সদস্য হিসেবে শপথ নিলেন। কেমন লাগছে?

কেমন লাগছে, তা বলার আগে নির্বাচন নিয়ে কিছু কথা বলতে চাই। কেউ কেউ এই নির্বাচনে ভোট কারচুপির কথা বলছেন। বিষয়টি হাস্যকর। আমরা বলতে চাই, শিল্পীরা ভোট দিয়ে আমাদের নির্বাচিত করেছেন। তাঁরাই ভালো জানেন, এই নির্বাচন কতটুকু সুষ্ঠু, নিখুঁত হয়েছে। যে বিশ্বাস নিয়ে চলচ্চিত্রশিল্পীরা আমাদের ভোট দিয়েছেন, এখন কাজের মধ্য দিয়ে সেই বিশ্বাস অটুট রাখতে হবে।

ভোট কারচুপির কথা কারা বলছেন?
কিছু মানুষ আছেন, যাঁরা ভোট কারচুপির কথা বলে নানা রকম জটিলতা তৈরি করছেন। এসব বলে তাঁরা সহজভাবে কাজ করতে দিতে চাইছেন না। এই সংগঠন দিয়ে তো কেউ আর্থিকভাবে লাভবান হতে আসেননি। কাজ করতে এসেছেন শিল্পীদের জন্য, চলচ্চিত্রের জন্য। কিন্তু কিছু মানুষ বিষয়টিকে নোংরামির পর্যায়ে নিয়ে যাচ্ছেন।

জানতে চাইছি এই ‘কিছু মানুষ’ কারা?
মুষ্টিমেয় কিছু লোক। নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে যাঁরা ভিনদেশি চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বাংলা চলচ্চিত্রকে ধ্বংস করতে চায়; যাঁদের এখানে ব্যবসায়িক স্বার্থ আছে, তাঁরাই ষড়যন্ত্রকারী।

এর আগে এফডিসিতে নিয়মিত আসেননি কেন?
এই জায়গার মাধ্যমে আজ আমি ‘রিয়াজ’ হয়েছি। মানসিকভাবে টান থাকলেও আসা হয়নি। এই এফডিসির মাটি থেকে শুরু করে সব জায়গাতেই আমার শ্রম, ঘাম জড়িয়ে আছে। আমাদের এই জায়গায় ধরে রাখতে যাঁদের প্রচেষ্টার দরকার ছিল, তাঁরাই আসলে চাননি যে আমরা এখানে আসি। এটি শুধু আমার কথা নয়, অনেক জ্যেষ্ঠ জনপ্রিয় তারকারও কথা।

শিল্পী সমিতির সদস্য হিসেবে এখন আপনার পরিকল্পনা কী?
প্রথম কাজ হবে বিজয়ী ও পরাজিতরা মিলে এক থাকা। সবাই আমরা শিল্পী—এটাই আমাদের বড় পরিচয়। সবাই বাংলাদেশে একটা স্বনির্ভর চলচ্চিত্রশিল্প দেখতে চাই। চলচ্চিত্রকে স্বার্থান্বেষী মহলের ষড়যন্ত্র থেকে রক্ষা করতে চাই। জেনে-শুনে যাঁরা চলচ্চিত্রের ক্ষতি করছেন, তাঁদের সবার মুখোশ খুলে দিতে চাই।
ভোট গণনার রাতে শাকিব খানের ওপর যে হামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে,

এর ব্যাপারে আপনি কী বলবেন?
সেদিন রাতে শাকিবের সঙ্গে কী ঘটেছে, তা আমি পত্রিকায় দেখেছি। তিনি থানায় অভিযোগ করেছেন। এ নিয়ে বেশি কিছু বলার নেই। শাকিব বেশ কিছুদিন ধরে তাঁর কার্যকলাপে নিজেই প্রশ্নবিদ্ধ। শাকিব আমার ছোট ভাইয়ের মতো। বর্তমানে তাঁর অভিনীত ছবিই এগিয়ে। আমি চাই, সে আরও ভালো করুক, তাঁর নাম দেশ-বিদেশে ছড়িয়ে পড়ুক। আমি চাই, তাঁকে ঘিরে তৈরি সব ধরনের প্রশ্ন থেকে বেরিয়ে নিজেকে ভালো শিল্পী, ভালো মানুষ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করুক।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 186 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ