সাইকেল চালালে ক্যান্সার ও হৃদরোগের ঝুঁকি কমে অর্ধেক

Print

সাইকেল চালালে ক্যান্সার ও হৃদরোগের ঝুঁকি কমে প্রায় অর্ধেক। এ গবেষণায় এসব কথা বলেছেন বিজ্ঞানীরা। ৫ বছর ধরে এ বিষয়ে গবেষণা করেছেন ইউনিভার্সিটি অব গ্লাসগো’র বিশেষজ্ঞরা। গবেষকরা বলেছেন, যেসব মানুষ নিয়মিত তার কর্মক্ষেত্রে সাইকেল চালিয়ে যান তাদের ক্যান্সার ও হার্টের অসুখের ঝুঁকি কমে যায় অর্ধেক। গবেষকরা প্রায় আড়াই লাখ মানুষের ওপর তাদের গবেষণা করেছেন। তাতে দেখা গেছে যারা তাদের বিভিন্ন কাজে সাইকেল চালিয়ে যাওয়া আসা করেন তাদের হৃদরোগের ঝুঁকি কমে যায় শতকর ৪৬ ভাগ। কর্মক্ষেত্রে যাওয়ার জন্য গণপরিবহনের ওপর নির্ভর না করে যারা সাইকেল ব্যবহার করেন তাদের ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমে যায় শতকরা ৪৫ ভাগ। এতে আরো দেখা গেছে, সাইকেল চালানো মানুষের যেকোনো রোগে আক্রান্ত হয়ে অসময়ে মৃত্যুর ঝুঁকিও কমে যায় শতকরা ৪১ ভাগ। এ ছাড়া যেসব মানুষ হেঁটে যাতায়াত করেন তাদেরও হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি কমে। তবে সাইকেল চালালে যে পরিমাণ সুবিধা পাওয়া যায় এক্ষেত্রে, ততটা হাঁটায় নয়। ইউনিভার্সিটি অব গ্লাসগো’র ড. কার্লোস সেলিস-মোরেল বলেছেন, হেঁটে কর্মস্থলে যাওয়ার সঙ্গে হৃদরোগ কমে যাওয়ার সম্পর্ক আছে। তবে সাইক্লিংয়ের সমান নয়। এর কারণ হলো সাইক্লিস্টদের চেয়ে পায়ে হাঁটা মানুষ কম পথ হাঁটেন। তারা স্বল্পতম দূরত্ব বেছে নেন। এক্ষেত্রে একজন মানুষ সপ্তাহে ৬ মাইলের মতো হাঁটেন। কিন্তু সাইকেল চালক সপ্তাহে ৩০ মাইলের মতো দূরত্ব অতিক্রম করেন। এডাম কোজেনস (৩৬) নামের একজন রাস্তায় ট্রাফিক জ্যাম কাটাতে বার্মিংহাম শহরে তার কর্মস্থলে যান সাইকেল চালিয়ে। এ দূরত্ব ৬ মাইল। ৯ মাস ধরে তিনি এই পথ সাইকেল চালিয়ে অফিস করছেন। এডাম বলেন, এখন তিনি স্বাস্থ্যগত দিক দিয়ে আগের চেয়ে অনেক বেশি সুস্থ বোধ করছেন। বিশেষ করে সকালে সতেজ, টাটকা বাতাসে দম টানতে পারি। এতে আমার মধ্যে শক্তি সঞ্চয় হয়। ইন্সটিটিউট অব কার্ডিওভাসকুলার অ্যান্ড মেডিকেল সায়েন্সেসের ড. জেসন গিল বলেন, স্বাস্থ্যগত যেকোনো সমস্যা অনেকাংশে কমিয়ে দেয় সাইকেল চালালে। যারা তাদের চলাচলের পথে সাইকেল চালান তাদের হৃদরোগ, ক্যান্সার ও অন্যান্য জটিল রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমে যায় শতকরা ৪০ ভাগের বেশি।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 244 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ