সাইবার হামলার পেছনে উ. কোরিয়া জড়িত

Print

বিশ্বব্যাপী সাইবার হামলার কারণে নড়েচড়ে বসেছে সবাই। কিন্তু এই সাইবার হামলার পেছনে কারা জড়িত? একটি প্রসিদ্ধ তত্ত্ব হচ্ছে উত্তর কোরিয়ার এর পেছনে থাকতে পারে- তবে আমরা জানি যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে এখনও অনেক সময় লাগবে।
আমরা হয়তো লাজারাস গ্রুপের নাম শুনিনি। কিন্তু আমরা এর কাজ সম্পর্কে অবগত। ২০১৪ সালের সনি পিকচার্স হ্যাক এবং ২০১৬ সালে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরি পেছেন একটি শক্তিশালী হ্যাকার গ্রুপকে দায়ী করা হয়েছে।

এটা ব্যাপকভাবে বিশ্বাস করা হয় যে লাজারাস গ্রুপ চীনের বাইরে কাজ করেছে, কিন্তু উত্তর কোরিয়ানদের পক্ষে।
গুগল নিরাপত্তা গবেষক নীল মেহতা লাজারাস গ্রুপের সাইবার হামলার বিষয়টি আবিষ্কার করার পর থেকে নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা এখন বেশ সতর্ক হয়ে গ্রুপটির সঙ্গে যুক্ত হচ্ছে। তিনি ওয়ানাক্রাই কোডের সঙ্গে হ্যাকিং গ্রুপের কোডের মিল পেয়েছেন বলে দাবি করেছেন। তবে এটা নিছক একটি তথ্য, বিবেচনা করার মতো আরও অনেক তথ্য রয়েছে বলে জানান নীল মেহতা।
রাশিয়ার নিরাপত্তা ফার্ম কাসপার্সকি বলছে, ওয়ানাক্রাই এর উৎপত্তি সংক্রান্ত তারিখ নিয়ে নীল মেহতার আবিষ্কার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সূত্র। তবে কোনো উপসংহারে পৌঁছাতে হলে ওয়ানাক্রাইয়ের পূর্বের ভার্সন সম্পর্কে আরও তথ্য প্রয়োজন বলে মনে করছে রুশ নিরাপত্তা ফার্মটি।
ফার্মটি আরও জানায়, আমরা বিশ্বাস করি বিশ্বজুড়ে অন্যান্য গবেষকদের এই সমতাগুলির নিয়ে তদন্ত করা উচিত এবং ওয়ানাক্রাইয়ের উৎপত্তি সম্পর্কে আরও তথ্য আবিষ্কার করার চেষ্টা করা গুরুত্বপূর্ণ।
ফার্মটি জানায়, বাংলাদেশ ব্যাংকের হ্যাকিংয়ের বিষয়ে লাজারাস গ্রুপের তেমন যোগসূত্র পাওয়া যায়নি। তবে বর্তমানে আমাদের কাছে এবং অন্যদের কাছে লাজারাস গ্রুপের বর্তমান হ্যাকিংয়ের বিষয়ে অনেক তথ্য রয়েছে। তাই এই বিষয়ে আরও গবেষণা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
পুরোপুরি নিশ্চিত না হয়ে শুধু ধারণার উপর নির্ভর করে সাইবার হামলাকারীদের শনাক্ত করা সম্ভব নয় বলে উল্লেখ করে ফার্মটি। উদাহরণ স্বরূপ বলা হয়, সনি পিকচার্স হ্যাকিংয়ের সঙ্গে নিজেদের জড়িত থাকার বিষয় এখন স্বীকার করেনি উত্তর কোরিয়া।
ধারণা করা হচ্ছে দক্ষ হ্যাকাররা উত্তর কোরিয়ার পতাকা ব্যবহার করছে, যাতে মনে হতে পারে হ্যাকিংয়ের সঙ্গে পিয়ংইয়ং জড়িত আছে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 191 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ