সীমান্ত ট্রেনে চেইন ট্রেনে রক্ষা পেল ১০৪ শিক্ষার্থী

Print

সময়মত জনৈক ট্রেনযাত্রী চেইন টেনে ট্রেন থামাতে না পারলে জন্ম নিতে পারতো মারাত্মক বিয়োগাত্মক ঘটনার। ওই যাত্রীর বুদ্ধিমত্তায় শেষ পর্যন্ত প্রাণে রক্ষা পেয়েছে এক কিন্ডার গার্টেন স্কুলের শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাভকসহ শতাধিক ট্রেনযাত্রী।
ঘটনাটি ঘটেছে, শুক্রবার দিবাগত রাত আনুমানিক দেড়টার সময় কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার পোড়াদহ রেলওয়ে ষ্টেশনে।

জানা যায়, উপজেলার শিশু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ‘হালসা কিন্ডার গার্টেন’ স্কুলের শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকসহ ১০৪ জন গত বৃহস্পতিবার আন্তঃনগর সীমান্ত এক্সপ্রেস ট্রেনযোগে শিক্ষা সফরে রংপুরের ভিন্ন জগত ও দিনাজপুরের স্বপ্নপুর যায়। ভ্রমন শেষে তারা আবার চিলাহাটি টু খুলনাগামী সীমান্ত এক্সপ্রেস ৭৪৮ ডাউন ট্রেনে বাড়ির পথে রওনা হয়।
ট্রেনটি রাত অনুমানিক দেড়টার সময় পোড়াদহ স্টেশনে থামে ট্রেনটি। স্কুলের শিক্ষার্থীরা নামতে শুরু করে। কিন্তু ট্রেনটি মাত্র দেড় মিনিট বিরতি দিয়ে খুলনার উদ্দেশ্যে চলতে শুরু করে। ওই সময় চলন্ত ট্রেনে কোমলমতি শিশু শিক্ষার্থীরা লাফিয়ে নামতে থাকে।
ট্রেনে থাকা বাকি শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা নামতে ব্যার্থ হওয়ায় ট্রেনের মধ্যে উদ্বেগ-উৎকন্ঠায় চিৎকার চেচামেচি শুরু হয়। এক পর্যায়ে জনৈক যাত্রী ঘটনাটি বুঝতে পেরে চেইন টানলে কিছুদুর দুরে গিয়ে ট্রেনটি থেমে যায়। পরে শিক্ষা সফরে যাওয়া যাত্রী ও ট্রেনের অন্যান্য যাত্রীরা নিরাপদে নামতে পারে।
হুড়োহুড়ি করে নামতে গিয়ে বেশ কয়েকজন শিশু শিক্ষার্থী ও ট্রেনযাত্রীরা আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এ বিষয়ে ওই কিন্ডার গার্টেনের পরিচালক রহিদুল ইসলামের সঙ্গে মুঠোফোনে আলাপ হলে তিনি জানান, আমরা ৮০টি টিকিট কেটে ট্রেনে উঠি এবং কোন ষ্টেশনে নামবো তা আগেই ড্রাইভার ও ট্রেনের গার্ডকে জানিয়ে দিই। তা সত্বেও আমাদের কোমলমতি শিক্ষার্থীদের সবার নামা নিশ্চিত না হতেই ট্রেনটি চলতে থাকে। অন্যদিকে অতিসম্প্রতি সড়ক দুর্ঘটনা এড়াতে শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে জেলার বাইরে শিক্ষা সফরে যেতে হলে উপজেলা পর্যায়ে অবশ্যই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও শিক্ষা অফিসারের অনুমতি বাধ্যতামুলক করা হয়েছে।
কিন্ত হালসা কিন্ডার গার্টেন অনুমতি ছাড়াই কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নিয়ে ওই শিক্ষা সফরে গিয়েছিল বলে অভিযোগ উঠেছে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 329 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ