সুরঞ্জিত সেনের মরদেহ জিগাতলার বাসায় নেয়া হচ্ছে

Print

জিগাতলার নিজস্ব বাসায় নেয়া হচ্ছে সদ্য প্রয়াত সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মরদেহকে। এর আগে রোববার (ফেব্রুয়ারি ০৫) ভোর ৪টা ২৪ মিনিটে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন প্রবীণ এই রাজনীতিক।
এদিকে সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ার পর থেকেই হাসপাতালে ভিড় জমাচ্ছেন তার আত্মীয় স্বজনসহ আওয়ামী লীগের সর্বস্তরের নেতাকর্মীরা।

হাসপাতালে উপস্থিত সুনামগঞ্জ-৫ আসনের সংসদ সদস্য মুহিবুর রহমান বলেন, আমরা এখন লাশবাহী অ্যাম্বুলেন্সের জন্য অপেক্ষা করছি। সুরঞ্জিত সেনের মরদেহকে প্রথমে জিগাতলায় অবস্থিত তার নিজস্ব বাসভবনে নেয়া হবে। সেখানে পারিবারিকভাবে মৃতদেহ সৎকারের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত জানানো হবে।
দীর্ঘদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন দেশের প্রবীণ রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। শুক্রবার সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় তাকে ল্যাবএইড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার আরও অবনতি ঘটলে শনিবার রাতে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেয়া হয়।
১৯৪৬ সালে সুনামগঞ্জের আনোয়ারাপুরে জন্ম নেন সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত। মোট সাতবার সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন এই প্রবীণ পার্লামেন্টারিয়ান। ১৯৯৬ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সংসদ বিষয়ক উপদেষ্টা ছিলেন তিনি। ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ দ্বিতীয়বারের মতো ক্ষমতায় আসার পর তিনি রেলমন্ত্রী হন। পরবর্তীতে তাকে দফতরবিহীন মন্ত্রী করা হয়।
সুরঞ্জিত সেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ও স্নাতকোত্তর সম্পন্ন করেন। সেন্ট্রাল ল’ কলেজ থেকে এলএলবি পাশের পর আইন পেশায় যুক্ত হন তিনি।
বর্তমান সংসদের আইন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি ছিলেন সুরঞ্জিত সেন। একই সঙ্গে সুপ্রিম কোর্ট বার কাউন্সিলেরও সদস্য ছিলেন তিনি।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 134 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ