সৈয়দপুরে ত্রাণ লুটের মামলায় ইউপি চেয়ারম্যান সহ অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারের দাবি

Print

ক্রাইমরিপোর্টার নীলফামারী ॥ এক লাখ তিন হাজার ৭৫০ টাকার ত্রাণ লুটের মামলায় নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সহ অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবি করেছে নীলফামারী রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির বন্ধু বিভাগের সদস্যরা। শনিবার তারা সাংবাদিকদের কাছে এই দাবি করে।
অভিযোগ মতে, সম্প্রতিকালের বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ্যদের তিনশত পরিবারের তালিকা করে তাদের মাঝে চলতি বছরের ২ অক্টোবর (সোমবার) উক্ত ইউনিয়নের অচিনার ডাঙ্গা নামক স্থানে ত্রাণ বিতরন করা হচ্ছিল।
নীলফামারী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, জেলা রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীনের উপস্থিতিতে রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির ১২জন স্বেচ্ছাসেবক ত্রাণ বিতরনে অংশ নিয়ে প্রতি পরিবারের জন্য ১হাজার ২৫০ টাকা মূল্যের প্যাকেট ত্রান বিতরন করছিল। যার মধ্যে ছিল ১৫ কেজি চাল, ২ কেজি ডাল, ১ লিটার তেল, ১ কেজি চিনি, ১ কেজি লবন ও ১ কেজি সুজি।

এ সময় কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনামূল হক চৌধুরী, ওই ইউনিয়নের ৪নম্বর ওয়াডের ইউপি সদস্য এছাউল হক এবং ইউপি সদস্যের দুই ছেলে মুন্না ও আউয়াল সহ অজ্ঞাত আরো ২২-২৩ জন লাঠিসোডা নিয়ে এসে হামলা চালিয়ে ৮৩টি পরিবারের জন্য বরাদ্দকৃত ত্রাণ লুট করে। লুটকৃত ত্রানের মূল্য প্রায় ১ লাখ ৩ হাজার ৭৫০ টাকা। এ সময় বাধা দিতে গেলে হামলাকারীদের লাঠির আঘাতে স্বেচ্ছাসেবকদের ৮জন সদস্য গুরতর আহত হয়।
এ ঘটনায় রেডক্রিসেন্ট সোসাইটির নীলফামারী জেলা শাখার বন্ধুত্ব বিভাগের বিভাগীয় প্রধান ইফতেখার আহমেদ উদাস নিজে বাদী হয়ে ৮ অক্টোবর (রবিবার) সৈয়দপুর থানায় উল্লেখিত ত্রান লুটকারীদের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করে। ৯ অক্টোবর (সোমবার) আদালতে মামলা দায়ের করা হয়।
নীলফামারী যুবরেডক্রিসেন্ট সদস্য মাসুদ সরকার বলেন আসামীরা উল্টো এখন আমাদের মামলা তুলে নেয়ার জন্য হুমকী দিচ্ছে। তাই তাদের দ্রুত গ্রেফতার সহ বিচারের দাবি করা হয়েছে।
এই মামলার প্রধান আসামী সৈয়দপুর উপজেলার কাশিরাম বেলপুকুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান এনামূল হক চৌধুরীর সাথে এ বিষয়ে কথা বলার চেষ্টা করা হলে তাকে মোবাইল ফোনে পাওয়া যায়নি।
সৈয়দপুর থানার ওসি শাহ্জাহান পাশা বলেন, এ মামলার পর আসামীরা সকলে পলাতক রয়েছে। তবে তাদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ বিভিন্নস্থানে অভিযান অব্যাহত রেখেছে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 100 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ