অনলাইন রিলিজে কলকাতার যৌনতা নির্ভর ছবি ‘ল্যাংটো’

Print

ফের অনলাইন রিলিজে কলকাতার যৌনতা নির্ভর ছবি 'ল্যাংটো'

কসমিক সেক্সের পর আরও একটি অ্যাডাল্ট কনটেন্টের ছবি দেখাবে না নন্দন। ছবির নাম ল্যাংটো। কথাটি শোনার পর এর কারণ জানতে পরিচালক সৌরীশ দে’র কাছে বিষয়টি বিস্তারিত জানতে চাইলে। পরিচালক তখন জানান, ছবিটি নিয়ে তিনি  ভারতের সেন্ট্রাল বোর্ড অফ ফিল্ম সার্টিফিকেশন-র কাছেই যাননি।

নিয়ম অনুযায়ী কোনও ছবি কমার্শিয়ালি রিলিজ় করাতে গেলে সিবিএফসি থেকে সার্টিফিকেট নিতে হয়। কিন্তু সৌরীশ দে সরাসরি সিবিসিএফ-র কাছে কোনও প্রস্তাব জমা দেননি। তিনি জানিয়েছেন, তিনি পরিচিত কারোর সঙ্গে কথা বলেছিলেন। কিন্তু সেই ব্যক্তি জানান ছবিটির বেশ কিছু দৃশ্য ছেঁটে ফেলতে হবে। তারপর হয়তো সিবিএফসি ছবিটিকে ‘এ’ সার্টিফিকেট দেবে। একথা শোনার পরই পিছিয়ে আসেন পরিচালক।

সৌরীশ আরও জানিয়েছেন, ছবিটি তিনি কমার্শিয়ালি রিলিজে কথা মাথায় রেখে বানাননি। তাঁর লক্ষ্য ছিল চলচ্চিত্র উৎসবগুলি। ছবিটি ইতিমধ্যেই একাধিক ফিল্ম ফেস্টিভালে গেছে। এর মধ্যে আছে লস অ্যাঞ্জেলস ইন্ডিপেন্ডেন্ট ফিল্ম ফেস্টিভাল অ্যাওয়ার্ড (২০১৫)-এ সেরা বিদেশি ছবি বিভাগে মনোনীত হয়েছিল ছবিটি। ২০১৬-র লস অ্যাঞ্জেলস সিনে ফেস্টে দেখানো হয় ল্যাংটো। Indie Wise, 2016 ফেস্টিভালেও মনোনীত হয়েছিল ল্যাংটো। নয়ডা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে দেখানো হয়েছিল ছবিটি। সেখানে সেরা ফিচার ফিল্ম ও সেরা এডিটরের পুরস্কার পেয়েছিল। বাংলাদেশের ওপেন ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম ফেস্টিভালে সেরা ছবি নির্বাচিত হয় ল্যাংটো।

কমার্শিয়ালি রিলিজ় করছে না ল্যাংটো। তাহলে তো ছবিতে ব্যয় করা টাকা ফেরৎ আসার বা লাভের মুখ দেখারও কোনও সম্ভাবনা নেই? এবিষয়ে ছবির সহ প্রযোজক সুরজিৎ চন্দ জানিয়েছেন, তাঁরা ছবিটি অনলাইন রিলিজের চিন্তাভাবনা করছেন। সেখান থেকে হতে পারে ছবিটি লাভের মুখ দেখল। ল্যাংটো ছবিটি এক হতাশাগ্রস্থ ফটোগ্রাফারের গল্প। যৌনতা গল্পের প্রতিটি ছত্রে। লাইভ কামসূত্রকে ক্যামেরায় বন্দি করার গল্প ল্যাংটো।

ছবিতে অভিনয় করেছেন, ঋত্বিক রায়, ফইজ খান, ভাস্কর দত্ত, তথাগত চৌধুরী, অর্জুন চক্রবর্তী, ঝিলাম ঘোষ, রিচা দাস, সৌমিত্র দে, তমাল দাস, গৌতম বসাক, উশ্রী চক্রবর্তী, সায়ম, পিঙ্কি, সঞ্চারি ও অনেকে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 297 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ