অবশেষে মান্নার মুক্তির বাধা কাটলো

Print

%e0%a6%85%e0%a6%ac%e0%a6%b6%e0%a7%87%e0%a6%b7%e0%a7%87-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%ae%e0%a7%81%e0%a6%95%e0%a7%8d%e0%a6%a4%e0%a6%bf%e0%a6%b0-%e0%a6%acরাষ্ট্রদ্রোহ ও সেনা উসকানির অভিযোগে করা দুইটি মামলায় নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্নার হাইকোর্টের দেওয়া জামিন বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ। প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বিভাগ এই আদেশ দেন।
তার বিরুদ্ধে অন্য কোনো মামলা না থাকায় তার মুক্তিতে আর কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন মান্নার আইনজীবী ইদ্রিসুর রহমান।
ইদ্রিসুর রহমান ঢাকাটাইমসকে বলেন, দুই মামলায় মান্নার জামিন বহাল রেখেছে আপিল বিভাগ। তার বিরুদ্ধে অন্য কোনো মামলা না থাকায় তার মুক্তিতে আর কোনো বাধা নেই।
গতকাল রবিবার মান্নার জামিন বিষয়ে দুই মামলার শুনানি শেষে আদেশের জন্য সোমবার দিন ঠিক করে দেন আপিল বিভাগের ওই বেঞ্চ। আদালতে মাহমুদুর রহমান মান্নার পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী ইদ্রিসুর রহমান। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অতিরিক্ত এটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা।
গত ১০ নভেম্বর সেনা বিদ্রোহে উসকানির মামলায় মান্নাকে জামিন দেয় হাইকোর্ট। এ জামিন আদেশের বিরুদ্ধেও আপিল করে রাষ্ট্রপক্ষ। রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে করা মামলায় গত ৩০ আগস্ট হাইকোর্ট মান্নাকে জামিন দিয়েছিল। এ আদেশের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষ আবেদন করলে আপিল বিভাগ ওই জামিন স্থগিত করেন। পাশাপাশি নিয়মিত লিভ টু আপিল করতে বলেন। এর ধারাবাহিকতায় আজ বৃহস্পতিবার বিষয়টি শুনানির জন্য আসে।
মামলার বিবরণ সূত্রে জানা গেছে, যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থানরত বিএনপির তৎকালীন ভাইস চেয়ারম্যান সাদেক হোসেন খোকার সঙ্গে টেলিফোনে কথা বলেন মান্না। ওই কথাবার্তার দুইটি অডিও ক্লিপ প্রকাশের পর ২০১৫ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর রাষ্ট্রদ্রোহ ও সেনা বিদ্রোহে উসকানির অভিযোগে একই বছরের ২৪ ফেব্রুয়ারি ও ৫ মার্চ মান্নার বিরুদ্ধে দুইটি মামলা করা হয়। এ দুইটি মামলায় নিম্ন আদালতে জামিন আবেদন করলে তা নাকচ করে মান্নাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেয় আদালত। এরপর উচ্চ আদালতে জামিন আবেদন করেন মান্না। ওই বছরের ২১ মার্চ আদালত শুনানি শেষে একটি রুল জারি করেন। রুলের চূড়ান্ত শুনানি শেষে জামিন আদেশ দেয় আদালত। তবে তার বিরুদ্ধে সেনা বিদ্রোহের উসকানির আরো একটি মামলা রয়েছে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 65 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ