‘আমার পরিবার গরীব বলে শিবলী মারধরও করতো’-সালমা

Print

ক্লোজআপ ওয়ান তারকা সংগীতশিল্পী সালমা।  ২০০৯ সালের শীতকালে তার গান শুনেই দিনাজপুরের নবাবগঞ্জ উপজেলার তৎকালীন চেয়ারম্যান শিবলী সাদি মুগ্ধ হন। তারপর প্রায় দুই বছর চলে প্রেম তাদের প্রেম। এরপর ২০১১ সালে পারিবারিকভাবেই সালমাকে বিয়ে করেন শিবলী। শিবলী সাদি বর্তমানে দিনাজপুর-৬ আসনের নির্বাচিত সাংসদ।

শিবলী সাদি রাজনৈতিকভাবে প্রতিষ্ঠিত একটি পরিবারে সন্তান। আর তাকে বিয়ে করে সালমা হারিয়ে গেলেন সংসার আর রক্ষণশীলতার বেড়াজালে। গান থেকে বেশি সংসার, স্বামী আর সন্তান জন্ম দিয়ে আলোচনায়।

কিন্তু শনিবার (২৬ নভেম্বর) হঠাৎ করেই আলোচনায় আসেন সালমা।নিজেই জানালেন, পারবারিকভাবেই বিচ্ছেদ হয়েছে তার। আর ডিভোর্সের কারণ হিসেবে সালমাজানিয়েছেন, শুধু মাত্র গানের কারণে শিবলী সাদিক তাকে পছন্দ করেছিলেন সেই গানের জন্যই তাদের ডিভোর্স হয়ে গেল। শিবলী চান না তার স্ত্রী গান করে বেড়াক। কিন্তু আপাদমস্তক শিল্পী সালমা গান থেকে দূরে থাকতে রাজি নন। এ নিয়ে প্রথমে কথা কাটাকাট হয়। তৈরি হয় দ্বন্দ্ব। সংসারে নেমে আসে অশান্তি।

সালমা কাঁদতে কাঁদতে বলেন, ‘গান করা নিয়ে শিবলীর ঘোর আপত্তি। সে কিছুতেই আমার গান করাকে মেনে নিতে পারে না। তার কথা হলো ঘরে বসে থাকো। সংসার দেখো। আমি অনেক বুঝিয়েছি। সংসার, সন্তান দেখাশোনা করেও গান করা যায়। কিন্তু সে কিছুতেই মানবে না। আমাকে গান ছাড়তেই হবে।’

সালমা আরো বলেন, ‘তবুও আমি নারী বলেই হয়তো সংসারের সঙ্গেই আপোষ করতে চেয়েছিলাম। একটি সন্তানও হয়েছে আমাদের। কিন্তু ও নানা কারণেই আমাকে কটু কথা বলতো।মারধরও করতো। আর আমার পরিবার গরীব বলে, বাবা-মা নিয়ে নানা রকম বাজে মন্তব্য করতো। ও এমনই অহংকারী জামাই, এই পাঁচ বছরে একদিনও আমার বাবাকে সালাম পর্যন্ত দেয়নি। এমন একজন মানুষের সঙ্গে কীভাবে সংসার করা যায় আমার জানা নেই। বাধ্য হয়েই ডিভোর্স নিতে হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আমি শুনেছি আমার আগে সে আরো একটি বিয়ে করেছিল। সেখানেও তার একটি সন্তান আছে। আমি শান্তি চাই। আমি মেয়েকে নিয়ে ভালো থাকতে চাই। আমি কোনো বিবাদ চাই না। অনেক চেষ্টাই করেছি সংসার টিকিয়ে রাখতে। শেষপর্যন্ত হাল ছাড়তেই হলো।’

সবার কাছে দোয়া চেয়ে সলামা বলেন, ‘মানুষ ভুল করে। মানুষই তা শুধরে নেয়। নিজের সুখের আশায়, বাবা-মায়ের দিকে তাকিয়ে আমি বিয়ে করেছিলাম। গান, গানের গুরু, ভক্তদের কথা ভাবিনি। সেই শাস্তিটাই তো পেয়ে গেলাম। যাই হোক। কাউকে দোষ দেই না আমি। কারো বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগও নেই। আমি নতুন করে সবকিছু শুরু করতে চাই। আবারো গানে নিয়মিত হতে চাই। আমার জন্য দোয়া করবেন।’

সালমা নিশ্চিত করে জানান, সম্প্রতি আনুষ্ঠানিকভাবে স্বামী শিবলী সাদিকের সঙ্গে ডিভোর্স হয়েছে তার। সালমা-শিবলী দম্পতির একমাত্র সন্তানের নাম স্নেহা। দাম্পত্য কলহের কারণে সে গেল চার মাস ধরে বাবা শিবলীর কাছেই ছিল। তবে ডিভোর্সের আইন অনুযায়ী এখন থেকে মেয়ের উপর বাবা ও মা দুজনই সব রকম যোগাযোগের অধিকার পাবেন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 946 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ