আমার প্রস্তাব আলোচনার ভিত হতে পারে : খালেদা জিয়া

Print

cxn0lmquuaaxbx1-jpg-largeআজ শনিবার এক টুইটবার্তায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া নির্বাচন কমিশন গঠনে দলের প্রস্তাব দেওয়ার একদিন পরই নিজের প্রস্তাবকে আলোচনার ভিত হতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন।

 

তিনি বলেন, ‘নিরপেক্ষ ইসি গঠনে আমি বিএনপির প্রস্তাবনা তুলে ধরেছি। অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চাইলে ক্ষমতাসীনরাও এর ভিত্তিতে আলোচনার সুযোগ নিতে পারে।’

বাংলার পাশাপাশি ইংরেজি ভাষায়ও টুইট করেন খালেদা জিয়া। আগামী জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন নিয়ে গতকাল শুক্রবার ১৩ দফা প্রস্তাব তুলে ধরেন খালেদা জিয়া।

প্রস্তাবে খালেদা জিয়া বলেন, ‘সবগুলো রাজনৈতিক দলের মধ্যে মতৈক্যের ভিত্তিতে গঠন করতে হবে নির্বাচন কমিশন। আর যতদিন এই মতৈক্য প্রতিষ্ঠিত না হবে ততদিন চালিয়ে যেতে হবে আলোচনা।’

বিএনপি নেত্রীর প্রস্তাবে নির্বাচনী আইন সংশোধন, নির্বাচন কমিশন সচিবালয় গঠন, তাদের আর্থিক স্বাধীনতা দেওয়া, নির্বাচনকালীন বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ওপর কমিশনের কর্তৃত্ব নিশ্চিত করা, নির্বাচনে সেনাবাহিনী মোতায়েন, সেনাবাহিনী এবং নির্বাচনী কর্মকর্তাদেরকে ম্যাজিস্ট্রেসি ক্ষমতা দেওয়া, তফসিল ঘোষণার পর থেকে জেলা প্রশাসক, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, পুলিশ সুপার ও থানার নির্বাহী কর্মকর্তাদেরকে বদলি করে নতুনদেরকে পদায়নের সুপারিশও দেন খালেদা জিয়া।

নাগরিক সমাজের মধ্য থেকে ‘সৎ, যোগ্য ও দল নিরপেক্ষ প্রতিনিধিদের’ও যুক্ত করা যেতে পারে বলে অভিমত দেন খালেদা।

আগামী ফেব্রুয়ারিতে বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। সরকার গতবারের মতোই সার্চ কমিটি গঠন করে নির্বাচন কমিশন গঠনের কথা বলছে। তবে  বিএনপি বলছে, এই পদ্ধতিতে নিরপেক্ষতা নিশ্চিত করা সম্ভব নয়। এ জন্যই তারা আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতে নির্বাচন কমিশন গঠনের কথা বলছে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 55 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ