আশা দেখছেন না মাশরাফি নিজেও

Print

%e0%a6%86%e0%a6%b6%e0%a6%be-%e0%a6%a6%e0%a7%87%e0%a6%96%e0%a6%9b%e0%a7%87%e0%a6%a8-%e0%a6%a8%e0%a6%be-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%b6%e0%a6%b0%e0%a6%be%e0%a6%ab%e0%a6%bf-%e0%a6%a8%e0%a6%bf%e0%a6%9cবিপিএলের টানা তিন আসরে চ্যাম্পিয়নের ট্রফি উঠেছিল মাশরাফি বিন মর্তুজার হতে। প্রথম দু’বার ঢাকা গ্লাডিয়েটর্স ও শেষবার কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের নেতৃত্বে ছিলেন জাতীয় ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি দলের এ অধিনায়ক। কুমিল্লাকে প্রথম আসরে চ্যাম্পিয়ন করা মাশরাফির ওপর প্রত্যাশা ছিল আকাশছোঁয়া। কিন্তু তাদের দ্বিতীয় আসর শুরু হয়েছে হতাশা নিয়ে। চ্যাম্পিয়নরা চতুর্থ আসরের প্রথম ম্যাচেই হেরে গেছে চিটাগং ভাইকিংসের কাছে। এরপর আরো তিন হারে পয়েন্ট শূন্য হয়ে এখন তালিকার তলানিতে। ঢাকার প্রথম পর্বে টানা হারে কুমিল্লার ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকদের সঙ্গে এরই মধ্যে মান অভিমানও হয়েছে অধিনায়ক মাশরাফির। দল নিয়ে মালিক পক্ষের হস্তক্ষেপে মাশরাফির হোটেল ছেড়ে বাসায় চলে যাওয়ার ঘটনাও ঘটেছে। তাই চট্টগ্রাম পর্বে দেশ সেরা এই অধিনায়কের জন্য অপেক্ষা করছে অন্য এক চ্যালেঞ্জ। এই পর্বে জয় না পেলে বিপিএলে তাদের টিকে থাকার আশা একবারেই ফুরিয়ে যাবে। তাই আজ রংপুর রাইডার্সের বিপক্ষে সন্ধ্যায় মাশরাফি বাহিনীর লক্ষ্য শুধুই জয়। জয় ছাড়া বিকল্প ভাবছে না অধিনায়ক মাশরাফিও। কারণ তার বিশ্বাস শুধু একটি জয়ই পারে তাদের এ পরিস্থিতি বদলে দিতে। ‘আমি মনে করি একটা ম্যাচ জিতলে দৃশ্যপট পাল্টে যেতে পারে। এই জয় দলকে তাতিয়ে দিবে। ফলে পরবর্তী ম্যাচগুলোতে আমরা ভালো খেলে শুরুর ক্ষতি পুষিয়ে নিতে পারবো।’
চট্টগ্রামে বিপিএলের ম্যাচে সময় পরিবর্তন হয়েছে শিশির আতঙ্কে। বিকাল ৫টা ৪৫ মিনিটে শুরু হয় দিনের দ্বিতীয় ম্যাচ। কিন্তু শুক্রবার বলে আজ কুমিল্লা ও রংপুরের ম্যাচটি মাঠে গড়াবে সন্ধ্যা ৬টা ১৫ মিনিটে।

সকালে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের পাশের মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে অনুশীলন করে মাশরাফির দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। অনুশীলনের এক ফাঁকে অধিনায়ক মাশরাফি কথা বলেন সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে। দলের জয়ের জন্য মরিয়া হলেও অধিনায়কের কণ্ঠে ছিল হতাশার সুর। কারণ টানা হারে দলের অবস্থান তলানিতে হওয়ায় খুব বেশি কিছু আশা করতে পারছেন না তিনি। তবে এমন অবস্থাতে হারানোর কিছু না থাকায় শুধু আজকের ম্যাচেই নয়, পরের ম্যাচ গুলোতেও দলকে নির্ভার হয়ে খেলার পরামর্শ দিয়েছেন অধিনায়ক। মাশরাফি বলেন, ‘আমরা পয়েন্ট তালিকায় একেবারে তলানিতে আছি। আমাদের তাই আর আশা নেই বললেই চলে। ফলে আমাদের হারানোর কিছু নেই। তাই নির্ভার হয়ে খেললে ভালো কিছু আসতে পারে।’ কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের দেশি-বিদেশি কোনো ক্রিকেটারই পারফরম্যান্স করতে পারছেন না। বিশেষ করে শেষ আসরে কুমিল্লার হয়ে সর্বোচ্চ রান করা ওপেনার ইমরুল কায়েস এবার ৪ ম্যাচেই ব্যর্থ। আরেক ওপেনার লিটন কুমার দাসও নিজেকে খুঁজে পাননি ব্যাট হাতে। শেষ আসরে কুমিল্লার পক্ষে দারুণ ব্যাটিং করা পাকিস্তানি বংশোদ্ভুত ক্রিকেটার আযহার জাইদিও ব্যর্থ এখন পর্যন্ত। বিদেশিদের মধ্যে ব্যাট হাতে চার ম্যাচে সর্বোচ্চ ১০১ রান করেছেন মারলন স্যামুয়েলস। তবে তার ব্যাট থেকেও কোনো ফিফটি আসেনি। এরপরই আছেন অনূর্ধ্ব-১৯ দলের নাজমুল হোসেন শান্ত। একটি ফিফটিতে চার ম্যাচে ৯৬ রান। আর বল হাতে কুমিল্লার সফল রাশিদ খান, ২ ম্যাচে তার শিকার মাত্র ৪ উইকেট। ব্যাটিং ও বোলিং পারফরম্যান্সে সেরা দশে নেই দলটির কোনো ক্রিকেটার। তাই তিন ম্যাচ খেলা ২ ম্যাচে দারুণ জয় পাওয়া রংপুরের সামনে কুমিল্লার চ্যালেঞ্জটাও কঠিন তা বলার অপেক্ষা রাখে না।
অন্যদিকে সবচেয়ে কম আলোর তারকা নাঈম ইসলামের রংপুর রাইডার্স শুরু থেকেই চমক দেখাচ্ছে। প্রথম দুই ম্যাচে চিটাগাং ও খুলনা টাইটন্সকে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে হারিয়ে শুরু করে। তবে তৃতীয় ম্যাচে ঢাকার কাছে হেরে যায় ৭৮ রানে। দলটির দেশি বিদেশি সবার পারফরম্যান্সই দারুণ। প্রথম ম্যাচে আফগান তারকা মোহাম্মদ শাহজাদ ব্যাট হাতে অপরাজিত ৮০ রান করে দলকে জয় এনে দেন। আর খুলনা টাইটন্সকে দলটি মাত্র ৪৪ রানে অলআউট করেছে। সেখানে রেকর্ড গড়েছেন স্পিনার আরাফাত সানি কোনো রান খরচ না করেই ৩ উইকেট নিয়ে। আজ হারে হতাশ কুমিল্লাকে চেপে ধরতে রংপুর থাকবে মরিয়া।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 69 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ