ইমো, ভাইবার বন্ধের প্রশ্নই আসে না : তারানা

Print

%e0%a6%87%e0%a6%ae%e0%a7%8b-%e0%a6%ad%e0%a6%be%e0%a6%87%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%ac%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%a7%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%b6%e0%a7%8d%e0%a6%a8ইমো, ভাইবার, হোয়াটসঅ্যাপ বন্ধের কোন সিদ্ধান্ত সরকার নেয়নি উল্লেখ করে ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম জানিয়েছেন সামাজিক এসব যোগাযোগ মাধ্যমগুলো বন্ধ হওয়ার প্রশ্নই আসে না।
ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে রবিবার এ কথা জানানো হয়েছে।
ভাইবার, হোয়াটসঅ্যাপ, ইমোর মত স্মার্টফোন অ্যাপ দিয়ে ভয়েস কলের সুবিধা নিয়ে থাকে গ্রাহকরা।
শুক্রবার (২৫ নভেম্বর) বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থার (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ জানিয়েছিলেন, এ অ্যাপগুলোর ভয়েস কল সুবিধার কারণে আন্তর্জাতিক ফোন কলের ব্যবসায় বাংলাদেশ মার খাচ্ছে। এজন্য তারা একটি নীতিমালা করতে যাচ্ছে। মোবাইল ফোনে এ ধরনের ‘ওভার দ্য টপ’ অ্যাপ ব্যবহার করে ভয়েস কলের সুবিধার বিষয়ে আগামী দুই এক মাসের মধ্যে একটি সিদ্ধান্তে আসতে চায় বিটিআরসি।
চেয়ারম্যানের এ বক্তব্য ধরে ভাইবার, হোয়াটসঅ্যাপ, ইমোর মত অ্যাপগুলো বন্ধ হচ্ছে বলে বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়।
বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রকাশিত বিটিআরসির বক্তব্যের প্রতি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের দৃষ্টি আকৃষ্ট হয়েছে।
তারানা হালিম এ বিষয়ে বলেন, ‘বন্ধ হতে হবে অবৈধ ভিওআইপি। এক্ষেত্রে সরকারের অবস্থান হলো অবৈধ ভিওআইপি’র ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স। ইমো, ভাইবার, ওয়াটসঅ্যাপ বন্ধ করার কোন প্রশ্নই আসে না। এমন কোন সিদ্ধান্তও সরকার নেয়নি। কাজেই ওয়াটসঅ্যাপ, ইমো, ভাইবার বন্ধ হবে না, হচ্ছে না, হওয়ার প্রশ্নই আসে না।’

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 70 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
error: