এবার সরকারের সমালোচনায় শিক্ষার্থীরা

Print

%e0%a6%8f%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%b0-%e0%a6%b8%e0%a6%b0%e0%a6%95%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%b8%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%b2%e0%a7%8b%e0%a6%9a%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a7%9f-%e0%a6%b6দেশের প্রায় ১৮টি বিশ্ববিদ্যালয়ের সনদ অবৈধ ঘোষণা করায় বিপাকে পড়েছেন শিক্ষার্থীরা। স্বীকৃত উপচার্য না থাকায় সরকারের নেওয়া কঠোর সিদ্ধান্তে তীব্র সমালোচনাও করছেন শিক্ষার্থীরা। । যদিও নিতীনির্ধারকরা বলছেন, শৃঙ্খলা ফেরাতেই এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা। আর শিক্ষাবিদরা বলছেন, এই জন্য শাস্তি দেওয়া উচিত অভিযুক্ত বিশ্বেবিদ্যালগুলোর নীতিনির্ধারকদের।
২ বছর আগে প্রতিষ্ঠিত নটরডেম বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীর সংখ্যা প্রায় দেড় হাজারেরও বেশি। যেখানে কোষাধক্ষ রাষ্ট্রপতির নিয়োগ করা। কিন্তু ভিসি ও প্রভিসির ফাইল রয়েছে রাষ্ট্রপতির নিয়োগের অপেক্ষায়। ইউজিসির প্রজ্ঞাপন অনুযায়ী ভবিষ্যতে এর সনদ হবে অবৈধ।
এখন ৯ টি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি নেই। ৮টি চলছে ভারপ্রাপ্ত ভিসি দ্বারা। অভিযুক্ত ১৮ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উত্তীর্ণ শিক্ষার্থীদের মূল সনদ হবে অবৈধ।
শিক্ষামন্ত্রলায় অতিরিক্ত সচিব হেলাল উদ্দিন আহম্মেদ বলেন, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়গুলোকে নিয়মের মধ্যে আনতেই এই পন্থা অবলম্বন করতে হয়েছে।
অভিযোগ রয়েছে ট্রাস্টি বোর্ডগুলো পছন্দের ভিসি দিয়ে চালাতে চায়। তাদের চাপে রাখার কৌশলকে সাধুবাদ জানালেও শিক্ষার্থীদের জিম্মি না করার পরামর্শও দিয়েছেন ইউজিসির সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এ কে আজাদ চৌধুরী।
জানা গেছে এরই মধ্যে কয়েকটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি নিয়োগের ফাইল বঙ্গবভনে পাঠানো হয়েছে। অনুমোদন হলে তুলে নেওয়া হতে পারে নিষেধজ্ঞা।

যদি অনুমোদন না হয় তাহলে ১৮ বিশ্বদ্যিালয়ের সকল শিক্ষার্থীদের চরম বিপাকে পড়তে হবে। আর জন্য শিক্ষার্থীরা সকােেরর সমালোচনায়ও লিপ্ত হচ্ছে। তাদের কেউ কেউ বলছে সরকার ব্যবস্থা নিবে তা নিতেই পারে, কিন্তু এর জন্য যেনো শিক্ষার্থীদের এভাবে বিপাকে ফেরতে পারে না। তাই তাদের আহ্বান সরকার যেনো এমন কোনো সিদ্ধান্ত না নেয় যাতে আমাদের (শিক্ষার্থীদের) সামনের চলার পথ বাধাগ্রস্থ হয়।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 47 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ