জাঁকজমকভাবে বাংলাদেশের বিজয় দিবস পালন করবে ভারত!

Print

%e0%a6%9c%e0%a6%be%e0%a6%81%e0%a6%95%e0%a6%9c%e0%a6%ae%e0%a6%95%e0%a6%ad%e0%a6%be%e0%a6%ac%e0%a7%87-%e0%a6%ac%e0%a6%be%e0%a6%82%e0%a6%b2%e0%a6%be%e0%a6%a6%e0%a7%87%e0%a6%b6%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%acভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকার বাংলাদেশের বিজয় দিবস পালনের পরিকল্পনা করছে। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নয়া দিল্লিকে বিজয় দিবস পালনের জন্য আহবান জানানোর পরিপ্রেক্ষিতেই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে মোদি সরকার। আগামী মাসেই নয়াদিল্লি সফর করবেন শেখ হাসিনা। সফরের সময় তিনি সামরিক সহায়তা চুক্তি সম্পন্ন করবেন।
ভারতের উচ্চপর্যায়ের কূননৈতিক সূত্রে জানা যায়, চীন সামরিক খাতে বাংলাদেশকে সহায়তা দেওয়ার পরে ভারতও বাংলাদেশ সামরিক সহায়তা দিতে চাইছে। তারই অংশ হিসেবে ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পরিকর বুধবার দুই দিনের সফরে বাংলাদেশে আসেন।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন ভারত সফরের সময় যাতে বাংলাদেশের সঙ্গে সামরিক সহায়তা চুক্তি করা যায় তারই অংশ হিসেবে পারিকর ঢাকায় আসেন। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, রাষ্ট্রপতি মো. আব্দুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রীর নিরাপত্তা বিষয়ক উপদেষ্টার সঙ্গে বৈঠক করবেন ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী।
ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পারিকর চট্টগ্রামের মিলিটারি একাডেমিও পরিদর্শন করবেন। তার সফরসঙ্গী হিসেবে আছেন ভারতের সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর উপ-প্রধান ও কোস্ট গার্ডের মহাপরিচালক। বাংলাদেশ চীন থেকে সম্প্রতি দুইটি ইলেকট্রিক ডিজেল সাবমেরিন ক্রয় করায় বাংলাদেশের সঙ্গে সামরিক সহায়তার আগ্রহ প্রকাশ করে ভারতের সরকার।
এই সাবমেরিন ক্রয়ের ব্যাপারে ২০১৩ সালেই শেখ হাসিনা ঘোষণা দিয়েছিলেন। বাংলাদেশের নৌ বাহিনীকে আরো আধুনিকায়ন করার লক্ষ্যেই সাবমেরিন ক্রয়ের কথা জানিয়েছিলেন শেখ হাসিনা। সাগরে অন্য দেশের সাবমেরিন ওয়ারফেয়ার প্রতিরোধ করতেই চীন থেকে ইলেকট্রিক ডিজেল সাবমেরিন ক্রয় করা হবে বলে গত বছর নভেম্বরে ভারত সফরের সময় বাংলাদেশ নৌ বাহিনীর প্রধান ফরিদ হাবিব জানিয়েছিলেন।
ফরিদ হাবিব তখন বলেছিলেন, আমাদের সীমানায় প্রহরার জন্যই সাবমেরিন ক্রয় করা হবে। সামুদ্রিক সমস্যা সমাধানের পরেও শুধু নিজ দেশের সামুদ্রিক এলাকার নিরাপত্তার জন্য তা ক্রয় করার কথা তখন জানান তিনি।
তিনি আরো বলেছিলেন, বাংলাদেশ ভারতের সঙ্গে অনানুষ্ঠানিকভাবে কাজ করবে। ডাকাতি ও জলদস্যুদের দৌরাত্মের মতো হুমকির জন্যই যৌথভাবে কাজ করবে বাংলাদেশ। সমুদ্রপথে হুমকি শুধু বাংলাদেশের জন্যই সমস্যা নয় আঞ্চলিক ক্ষেত্রেও এটি হুমকির কারণ। তাই এটি রোধ করতে ভারতের সঙ্গে কাজ করার কথা জানান হাবিব।
মজার ব্যাপার হলো বাংলাদেশ সমুদ্রে যে সমস্যার মধ্যে পড়ছে তা ভারতেরই তৈরি। এই সামরিক সহায়তার মধ্য দিয়ে আন্তর্জাতিক সামুদ্রিক সীমানা লাইনের মধ্যে দুই দেশের নৌ বাহিনী অনুশীলন করবে। এছাড়াও এক্সক্লুসিভ ইকোনোমিক্স জোন ও হাইড্রোগ্রাফি নিয়েও যৌথভাবে সহায়তামূলক কাজ করা হবে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 101 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ