নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে ভাসানীর আদর্শ : মির্জা ফখরুল

Print
নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দিতে হবে ভাসানীর আদর্শ : মির্জা ফখরুল
মওলানা ভাসানীকে আধুনিক এবং রাজনৈতিক নির্মাতা আখ্যা দিয়ে তার চেতনা ও দর্শনকে নতুন প্রজন্মের মাঝে ছড়িয়ে দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম।
তিনি বলেন, মওলানা ভাসানী আমাদের কাছে অনেক বড় মাপের রাজনীতিক। তিনি এদেশের মানুষের মুক্তির জন্য লড়েছেন। দু:খে কষ্টে তিনি মানুষের কাছে গিয়ে খোঁজ খবর নিয়েছেন। তিনি ছিলেন সফল, অমর অক্ষয়। বাংলাদেশ যতদিন থাকবে, এ দেশের মানুষ যতদিন থাকবে মওলানা ভাসানী ততদিন বেঁচে থাকবেন।
আজ রবিবার দুপুরে রাজধানীর নয়া পল্টনস্থ ভাসানী ভবন মিলনায়তনে এক সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব বলেন। মওলানা ভাসানীর ৪০ তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ভাসানী স্মৃতি সংসদ এই সভার আয়োজন করে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে মির্জা ফখরুল বলেন, মওলানা ভাসানী সেই আমলেও ছিলেন অত্যন্ত আধুনিক মানুষ। তিনি রাজনীতি নির্মাণ করতেন। দেশের কোথায় কোনো সমস্যা দেখা দিলে তিনি সবার আগে গিয়ে সেখানে হাজির হতেন। মানুষও তাকে খুব ভালোবাসতো। তিনি ছিলেন গণমানুষের নেতা। ব্রহ্মপুত্রের ভাসান চরে কৃষক সম্মেলন করে তিনি ভাসানী উপাধি পেয়েছিলেন। সব শ্রেণির মানুষের জন্য তিনি ছিলেন উদার।
ভাসানীকে সফল রাজনীতিবিদ আখ্যা দিয়ে বিএনপি মহাসচিব বলেন, মওলানা ভাসানী চীন, ইউরোপ, আমেরিকা, আফ্রো-এশিয়া সফর করেছেন। তিনি ওই সময়েই সেসব দেশ থেকে রাজনীতি দেখে শিখেছেন। তিনি ভেবেছিলেন বাংলাদেশ একটি স্বাতন্ত্র্য ভূখণ্ড। এখানকার মানুষের কৃষ্টি আলাদা। এখনকার মানুষের বিশ্বাস আলাদা। এ কারণেই মওলানা ভাসানী মানুষের হৃদয়ে স্থান লাভ করেন।
ভাসানী স্মৃতি সংসদের সভাপতি জিয়াউল হক মিলুর সভাপতি সভায় আরো বক্তব্য রাখেন- নাজমুল হক নান্নু, সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, ন্যান্সি রহমান প্রমুখ।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 54 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ