নেত্রকোনায় ১০ মাসে ৪২ খুন, ৪৫ ধর্ষণ, ৯৮ নারী নির্যাতন

Print

%e0%a6%a8%e0%a7%87%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%95%e0%a7%8b%e0%a6%a8%e0%a6%be%e0%a7%9f-%e0%a7%a7%e0%a7%a6-%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a7%87-%e0%a7%aa%e0%a7%a8-%e0%a6%96%e0%a7%81%e0%a6%a8নেত্রকোনা জেলায় গত ১০ মাসে ৪২টি খুন, ৪৫টি ধর্ষণ ও ৯৮টি নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। খুন, ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের সংখ্যা বেড়ে যাওয়ায় জনসাধারণের মনে চরম আতঙ্ক, উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠা বিরাজ করছে।
থানা, হাসপাতাল, নারী সংগঠনসহ সংশ্লিষ্ট নানা সূত্রে জানা গেছে, জানুয়ারী মাসে ৫টি খুন, ২টি ধর্ষণ ও ১৩টি নারী নির্যাতন, ফেব্রুয়ারী মাসে ৩টি খুন, ৪টি ধর্ষণ ও ৭টি নারী নির্যাতন, মার্চ মাসে ৪টি খুন, ৪টি ধর্ষণ ও ৯টি নারী নির্যাতন, এপ্রিল মাসে ৫টি খুন, ৪টি ধর্ষণ ও ১২টি নারী নির্যাতন, মে মাসে ৪টি খুন, ৩টি ধর্ষণ ও ৪টি নারী নির্যাতন, জুন মাসে কোন খুন নেই, ৪টি ধর্ষণ ও ১৩টি নারী নির্যাতন, জুলাই মাসে ৪টি খুন, ৬টি ধর্ষণ ও ৭টি নারী নির্যাতন, আগষ্ট মাসে ৮টি খুন, ৩টি ধর্ষণ ও ৮টি নারী নির্যাতন, সেপ্টেম্বর মাসে ৪টি খুন, ৮টি ধর্ষণ ও ৮টি নারী নির্যাতন, অক্টোবর মাসে ৫টি খুন, ৭টি ধর্ষণ ও ১৭টি নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে।
খোঁজ নিয়ে জানা যায়, জমি সংক্রান্ত বিরোধ, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার, দাম্পত্য কলহ, পারিবারিক কলহ, যৌতুক, পরকীয়া প্রেম, প্রেম সংক্রান্ত, মাদক, জুয়া, সুদ ও আর্থিক লেনদেন নিয়েই এ সকল খুন, ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছে। ফলে শান্তি প্রিয় নেত্রকোনায় আইন শৃংখলা পরিস্থিতির চরম অবনতি হওয়ায় জনমনে উদ্বেগ উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে।
এ ব্যাপারে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন সমাজ বিশ্লেষক বলেন, কোন এলাকায় একটি খুন, ধর্ষণ, নারী নির্যাতনের ঘটনা ঘটার পরপরই ঘটনার সাথে জড়িতদের ছাড়াও বিপুল সংখ্যক ব্যক্তিকে অজ্ঞাত আসামি করে মামলা করা হয়। এর ফলে পুলিশের গ্রেফতার বাণিজ্যের সুযোগ সৃষ্টি হওয়ায় প্রকৃত অপরাধীরা অনেক সময় থাকে ধরা ছোঁয়ার বাইরে। আইন শৃংখলা পরিস্থিতির অবনতির কোন ঘটনার উদ্ভব হওয়ার পর তাৎক্ষণিক কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ এবং রাজনৈতিক বিবেচনায় না নিয়ে অপরাধীর বিরুদ্ধে সঠিক আইনের কঠোর প্রয়োগ করলে খুন, ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের ঘটনা বহুলাংশে কমিয়ে আনা সম্ভব।
এ ব্যাপারে পুলিশ সুপার জয়দেব চৌধুরী বলেন, নেত্রকোনায় রাজনৈতিক কোন খুনের ঘটনা ঘটেনি। খুন, ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের সংখ্যা যাতে কমিয়ে আনা যায় সেই লক্ষ্যে পুলিশ বিভাগ প্রতিটি উপজেলায় বিভিন্ন শ্রেণী পেশার লোকদের নিয়ে কমিউনিটি পুলিশিং কার্যক্রমের আওতায় জনগনকে উদ্বুদ্ধ করণের মাধ্যমে আইন শৃংখলা পরিস্থিতি উন্নয়নের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 53 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ