প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানের ফুয়েল প্রেসার কমে গিয়েছিল

Print

%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a7%e0%a6%be%e0%a6%a8%e0%a6%ae%e0%a6%a8%e0%a7%8d%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a7%80%e0%a6%95%e0%a7%87-%e0%a6%ac%e0%a6%b9%e0%a6%a8%e0%a6%95%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a7%80প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানের ফুয়েল প্রেসার কমে গিয়ে গিয়েছিল। এ সময় বিমানের ইঞ্জিনের একটি নাট ঢিলে হয়ে যাওয়ায় যান্ত্রিক ক্রটি দেখা দেয়। এ কারণে রবিবার বিকালে বাংলাদেশ বিমানের ওই ফ্লাইটটি তুর্কমেনিস্তানে জরুরি অবতরণ করে। যদিও পরে ইঞ্জিনের ত্রুটি মেরামত করে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে বুদাপেস্টে রওনা হয়। রবিবার রাত ১১টা ৫ মিনিটের সময় বুদাপেস্ট বিমানবন্দরে অবতরণ করে। প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী সেই বিমানটি হাঙ্গেরি থেকে সোমবার সকালে ঢাকায় ফিরেও এসেছে। বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটনমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এই তথ্য জানিয়েছেন।
সোমবার দুপুরে সচিবালয়ে নিজ দফতর থেকে বিমান মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় কমিটির বৈঠকে যোগদানের উদ্দেশ্যে সংসদ ভবনে যাওয়ার সময় বাংলা ট্রিবিউনকে রাশেদ খান মেনন বলেন, ‘বিষয়টি খতিয়ে দেখতে ২টি তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে বিমান মন্ত্রণালয়ের সচিবের সঙ্গে পরামর্শ করে মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (প্রশাসন ও পর্যটন) স্বপন কুমার সরকারকে আহ্বায়ক করে চার সদস্যের তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। কমিটিকে আগামী ৭ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। কমিটিতে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের একজন প্রতিনিধি অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।’
এর আগে রবিবার রাতেই বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের চিফ টেকনিক্যাল কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন ফজলে মাহমুদ চৌধুরীর নেতৃত্বে একটি তদন্ত কমিটি হয়েছে। এই কমিটিকে ১ ডিসেম্বরের মধ্যে প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে।
রাশেদ খান মেনন জানান, ‘প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বিমানটি ছিল ভিভিআইপি ফ্লাইট। এই বিমানে কোনও ত্রুটি থাকার কথা নয়। সব কিছু সতর্কতার সঙ্গেই পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষেই প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে ফ্লাইটটি আকাশে ওড়ে। তারপরও এমন ত্রুটি থাকার কথা ছিল না। তাই এ ক্ষেত্রে কারও কোনও দায়িত্বে অবহেলা বা গাফিলতি ছিল কিনা, তা পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে খতিয়ে দেখতেই দুটি তদন্ত কমিটি করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির প্রতিবেদনের ওপর ভিত্তি করে দোষীদের বিরুদ্ধে অবশ্যই ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ’
উল্লেখ্য, রবিবার সকালে উড়োজাহাজটি হাঙ্গেরির উদ্দেশে ঢাকা ত্যাগ করেছিল। প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী বাংলাদেশ বিমানের বোয়িং ৭৭৭ ফ্লাইটটি বুদাপেস্ট যাওয়ার পথে ডাইভার্ট হয়ে ল্যান্ডিং করেছিল তুর্কমেনিস্তানের আসগাবাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। সেখানে উড়োজাহাজটির মেরামতের কাজ করেছেন চারজন ইঞ্জিনিয়ার। জরুরি মেরামত শেষে প্রধানমন্ত্রীকে নিয়ে পুনরায় বুদাপেস্টের উদ্দেশে রওনা করে এবং রাত ১১টা ০৫ মিনিটের সময় বুদাপেস্ট বিমানবন্দরে অবতরণ করে ।
এর আগে হাঙ্গেরির প্রেসিডেন্ট ড. জানোস এডারের আমন্ত্রণে বুদাপেস্ট পানি সম্মেলন ২০১৬-এ যোগ দিতে চারদিনের সফরে বুদাপেস্টের উদ্দেশে রবিবার সকালে ঢাকা ত্যাগ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
সফরসঙ্গী হিসেবে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন স্থানীয় সরকার, পল্লি উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন, পানি সম্পদমন্ত্রী ব্যারিস্টার আনিসুল ইসলাম মাহমুদ।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 131 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ