বাড়িতেই লুকিয়ে আছে বাড়তি পয়সা কামানোর উপকরণ

Print

বাড়িতেই লুকিয়ে আছে বাড়তি পয়সা কামানোর উপকরণ

 

১. পোশাক : কিছু পোশাক ভালো থাকে। কিন্তু ব্যবহার করা হয় না। এগুলো স্থানীয় কোনো দোকান যেখানে পুরনো কাপড় বিক্রি হয়, সেখানে দিয়ে আসুন। কমিশনের বিনিময়ে বিক্রি হয়ে যাবে।

২. জুতা ও হ্যান্ডব্যাগ : দামি কিছু জুতা ও হ্যান্ডব্যাগ থাকে যা এক সময় থেকে আর ব্যবহার করা হয় না। এগুলো কাছে কোনো শো-রুমে দিয়ে আসতে পারেন। যেসব স্থানে পুরনো ফ্যাশন সামগ্রী বিক্রি হয়, সেখানে আপনার জুতা বা হ্যান্ডব্যাগও বিক্রি হবে।

৩. অলংকার : হয়তো বংশানুক্রমে কোনো অলংকার পেয়েছেন যা ব্যবহার করতে মন চায় না। এগুলো বাড়িতে ফেলে না রেখে বিক্রি করে দিতে পারেন।

৪. কম্পিউটার : মানুষের কাছে পুরনো ল্যাপটপ বা মনিটর বা কম্পিউটার পড়েই থাকে। এগুলো সহজেই বিক্রি করে দিতে পারেন।

৫. সেলফোন : পুরনো কিছু সেলফোন রয়েছে যা আর ব্যবহার করছেন না। এগুলো কেনার ক্রেতা রয়েছে। বিক্রি করে দিন।

৬. গিফট কার্ড : অসংখ্য গিফট কার্ড মানুষ ফেলে দেন মানুষ। এগুলো পুনরায় কিনে বিক্রি করতে পারেন।

৭. বই : পুরনো বইয়ের চালু বাজার সারা বছরই থাকে। নিজের পুরনো বইগুলো বিক্রি করে দিতে পারেন। আবার একে নিয়মিত ব্যবসাও করে নিতে পারেন।

৮. বাচ্চাদের খেলনা : পুরনো খেলনা বিক্রির বাজার রয়েছে। নিজের বাড়িতে থাকা খেলনাগুলো বেচে দিন। আবার পাইকারী দরে কিনে খুচরা বিক্রি করতে পারে অনলাইনে।

৯. সংগ্রহযোগ্য পুতুল : আগের সময়কার বা বহু জনপ্রিয় পুতুল সংগ্রহে রাখেন বড়রাও। এগুলো অনলাইন থেকে কিনে সৌখিনদের কাছে বিক্রি করে দিতে পারেন।

১০. আসবাব : পুরনো আসবাবের বাজার আছে। বাসার পুরনো বা অকেজো আসবাব ঠিকঠাক করে বিক্রি করে দিতে পারেন।

১১. বাদ্যযন্ত্র : অনেকের কাছেই বাদ্যযন্ত্র পড়ে রয়েছে। হয়তো ছোটকালে কিনেছেন। আর চর্চা হয় না। এগুলো বিক্রি করে দিন বাদ্যযন্ত্র বিক্রেতাদের কাছে।

১২. খেলা সামগ্রী : আউটডোর বা ইনডোর খেলার সামগ্রীর চাহিদা সব সময় রয়েছে। পুরনোগুলো বিক্রি করতে পারেন। আবার নিয়মিতভাবেও ব্যবসাটি করতে পারে।

১৩. ক্রীড়ার সুভেনির : বহু খেলার জার্সি বা সুভেনির সংগ্রহে থাকে। আবার বাজার থেকে কেনাও যায়। এগুলো সংগ্রহে রাখার জন্যে সৌখিনরা রয়েছেন। তাদের কাছে আপনার সংগ্রহে থাকা সুভেনিরগুলো বিক্রি করে দিন।

১৪. অ্যান্টিক : পুরনো আমলের জিনিসপত্র বহুমূল্যে বিক্রি করা যায়। ঐতিহাসিক বা ভৌগলিক দিক থেকে এমন বহু মূল্যবান জিনিস অনেকের সংগ্রহে থাকে। এগুলো থেকে ভালো আয় করা যায়।

১৫. চিত্রকর্ম : উত্তারাধিকার সূত্র দুই-একটা চিত্রকর্ম সংগ্রহে থাকলে বিক্রি করে দিন। ভালো শিল্পীর আঁকা চিত্রকর্ম থাকলে বহু দামে বিক্রি করতে পারবেন।

১৬. ক্রোকারিজ : বহু অনষ্ঠানে মানুষ প্রচুর ক্রোকারিজ উপহার হিসাবে পেয়ে থাকেন। এত জিনিসপত্র বাড়তি পড়েই থাকে। এগুলো বিক্রি করে দিতে পারেন।

১৭. রূপা : রূপার গয়না বা চামচ অনেকে বাড়িতেই আছে। এগুলো সাধারণত অব্যবহৃত পড়ে থাকে। বিক্রি করে দিন। বহু পুরনো ও ঐতিহাসিক মূল্য যোগ হলে দাম অনেক বেড়ে যাবে।

১৮. বন্ড : হয়তো অনেক বন্ড কিনে রেখেছিলেন। এগুলো আর জমিয়ে না রেখে বিক্রি করে দিতে পারেন। বিনিময়ে যে অর্থ পাবেন তা আবারো সঞ্চয়ে রাখতে পারেন।

১৯. বাড়ির ভাঙা জিনিসপত্র্র : ফ্রিজ বা টিভি যেগুলো ভাঙা পড়ে রয়েছে তারও মূল্য আছে। এগুলো ঠিকঠাক করে অথবা এ অবস্থাতেই বিক্রি করে দিন।

২০. ভিডিও গেম : বাচ্চাদের জন্যে কেনা আগের ভিডিও গেমগুলো আর খেলা হয় না। হয়তো পড়েই রয়েছে। এগুলো সহজেই বিক্রি করে দিতে পারেন।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 47 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ
error: