বিমান পাল্টে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী, বাড়তি সতর্কতা

Print

%e0%a6%ac%e0%a6%bf%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%a8-%e0%a6%aa%e0%a6%be%e0%a6%b2%e0%a7%8d%e0%a6%9f%e0%a7%87-%e0%a6%ab%e0%a6%bf%e0%a6%b0%e0%a6%9b%e0%a7%87%e0%a6%a8-%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%a7তিন তিনের রাষ্ট্রীয় সফর শেষে হাঙ্গেরির রাজধানী বুদাপেস্ট থেকে বাংলাদেশের পথে রওয়ানা হয়েছেন্‌ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। হাঙ্গেরি যাত্রার পথে তুর্কমেনিস্তানে তার বিমানের জরুরি অবতরণের প্রেক্ষাপটে ফিরতি যাত্রায় এবার সব প্রস্তুতিতে বাড়তি নজরদারি করেছে বাংলাদেশ বিমান।
যে বিমানে করে প্রধানমন্ত্রী হাঙ্গেরি গিয়েছিলেন ফিরতি পথে তিনি আর সেটি ব্যবহার করছেন না। সতর্কতার জন্যই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বিমানের কর্মকর্তারা।
বিমানের জনসংযোগ বিভাগের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ জানান, বাংলাদেশ সময় বিকাল সাড়ে তিনটায় বুদাপেস্টের ফিরেন্স লিজৎ বিমানবন্দর থেকে রওয়ানা হয়েছেন। তিনি বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের বোয়িং সেভেন সেভেন সেভেন বিমান দিয়ে রওয়ানা হন। এই বিমানের নাম ‘আকাশ প্রদীপ’।
প্রধানমন্ত্রী হাঙ্গেরি যাওয়ার সময় ব্যবহার করেছিলেন বিমানের বোয়িং সেভেন সেভেন সেভেন থ্রি হানড্রেড ইআর উড়োজাহাজ। এর নাম ছিল ‘রাঙা প্রভাত’।
গত রবিবার প্রধানমন্ত্রীকে বহনকারী রাঙা প্রভাত কারিগরি ত্রুটির কারণে তুর্কমেনিস্তানে জরুরি অবতরণে বাধ্য হয়। এই খবরটি ছড়ানোর পর দেশজুড়ে উদ্বেগ উৎকণ্ঠার তৈরি হয়। বিমানের কর্মকর্তারা জানান, ইঞ্জিনের অয়েল প্রেসার কমে যাওয়ায় জরুরি অবতরণে বাধ্য হয়েছিলেন তারা।
এই ঘটনাটি তদন্তে মোট তিনটি কমিটি গঠন করেছে বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রণালয় এবং বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। বিমানমন্ত্রী রাশেদ খান মেনন জানিয়েছেন, বিমানের ইঞ্জিনের স্ক্র ঢিলা থাকায় এই ঘটনাটি ঘটেছে। এরই মধ্যে বরখাস্ত হয়েছেন ভিভিআইপি ফ্লাইট পরিচালনার দায়িত্বে থাকা বিমানের ইঞ্জিনিয়ারিং শাখার পরিচালক।
প্রধানমন্ত্রীবাহী বিমানের স্ক্র ঢিলা থাকা নিয়ে নানা গুঞ্জন তৈরি হয়েছে। এটি ষড়যন্ত্র কি না-তা খতিয়ে দেখতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রতিক্রিয়াও দেখাচ্ছেন হাজারো মানুষ।
এই অবস্থায় ফিরতি যাত্রায় বিমান আরও বেশি সতর্ক। জানতে চাইলে বাংলাদেশ বিমানের জনসংযোগ শাখার মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ ঢাকাটাইমসকে বলেন, ‘আমাদের একটি স্ট্যান্ডিং অপারেটিং প্ল্যান থাকে। এটা অনুযায়ী ভিআইপি ফ্লাইট উড়ার আগে সব পরীক্ষা-নিরীক্ষাই করা হয়। তারপরও প্রধানমন্ত্রীর হাঙ্গেরি যাত্রায় যে ঘটনা ঘটেছে, সে জন্য আমরা এবার আরও বেশি সতর্ক, আরও বেশি সচেতন। প্রধানমন্ত্রীর ফিরতি যাত্রায় সব পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হয়েছে আরও সতর্কতার সঙ্গে।’
বিমানের এই কর্মকর্তা জানান, প্রধানমন্ত্রীকে আনতে পাঠাতে উড়োজাহাজটি নতুন প্রায়। এই বিমানটি কেনা হয়েছে দুই বছর আগে। গত রাতে সৌদি আরবের রিয়াদ থেকে এটিকে পাঠানো হয় বুদাপেস্টে।
পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ এইচ মাহমুদ আলী, স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার খন্দকার মোশাররফ হোসেন, পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ ছাড়াও ব্যবসায়ীদের প্রতিনিধি দলও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ফিরছেন দেশে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 195 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ