বিয়ের দাবীতে যুবলীগ নেতার বাড়ীতে অবস্থানরত প্রেমিকাকে আটক

Print

%e0%a6%ac%e0%a6%bf%e0%a7%9f%e0%a7%87%e0%a6%b0-%e0%a6%a6%e0%a6%be%e0%a6%ac%e0%a7%80%e0%a6%a4%e0%a7%87-%e0%a6%af%e0%a7%81%e0%a6%ac%e0%a6%b2%e0%a7%80%e0%a6%97-%e0%a6%a8%e0%a7%87%e0%a6%a4%e0%a6%beনীলফামারীতে বিয়ের দাবীতে প্রেমিক যুবলীগ নেতা ও ইউপি সদস্যর বাড়ীতে অবস্থানরত অনার্স পড়–য়া প্রেমিকাকে আটক করেছে পুলিশ। পুলিশের আটকের এ ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্যর সৃষ্টি হয়েছে। প্রশ্ন উঠেছে অসহায় ওই প্রেমিকা যুবলীগ নেতার লালসার শিকারে পরিনত হয়েছে কি না। আদালতের আদেশ ছাড়াই ডোমার থানা পুলিশ প্রেমিক যুবলীগ নেতার বাবার একটি অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে আটক করে আজ শুক্রবার আদালতে পাঠিয়েছে। আদালত তার জামিন না মঞ্জুর করে তাকে জেল হাজতে পাঠায়। এ ঘটনায় নারী অধিকার ও নির্যাতন নিয়ে নুতন করে প্রশ্ন উঠেছে। প্রশ্ন উঠেছে মতাসীনের সাথে প্রেমের খেসারত জেলখানায় পুরে দেয়াকে ঘিরে। এ ঘটনাটি ঘটেছে জেলার ডোমার উপজেলার মৌজা বামুনিয়া গ্রামে। প্রেমিক যুবলীগ নেতা হলেন, বামুনিয়া ইউনিয়ন যুবলীগের আহ্বায়ক ও সংশ্লিষ্ট ইউনিয়নের ৫ নং ওয়ার্ড সদস্য তিতাস রহমান বাবু। সে ওই ওই এলাকার মশিয়ার রহমানের ছেলে। প্রেমিকা হলেন, একই উপজেলার মৌজা পাঙ্গা গ্রামের জয়নাল আবেদীনের মেয়ে নীলফামারী সরকারী কলেজের ইসলামের ইতিহাস বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্রী জোবায়দা আবেদীন জুই। গত বুধবার সন্ধ্যা হতে তিনি তার প্রেমিকের বাড়ীতে অবস্থান করেন। এরপর প্রেমিক ইউপি সদস্য ও যুবলীগ নেতা তার সহযোগীদের সহায়তায় মতার প্রভাবে রাতেই একটি ডোমার থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করে। দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে প্রেমিকা জুইকে পুলিশ আটক করে থানায় নিয়ে আসে। জোবায়দা আবেদীন জুই জানান, দেড় বছর আগে বাবুর সাথে আমার মোবাইলে যোগাযোগ হয়। যোগাযোগের পর থেকেই তার সাথে আমার ঘনিষ্টতা বাড়তে থাকে যা এক পর্যায়ে দৈহিক সম্পর্কে রূপ নেয়। আমি তার সাথে সম্পর্ক করতে না চাইলে সে নানা ভাবে আমাকে উত্যক্ত করতো। এখন সে অন্য মেয়েকে বিয়ের জন্য উঠে পরে লেগেছে। বিয়ের কথা বলে একাধিকবার সে আমার সাথে দৈহিক সম্পর্ক গড়ে তুলে। এখন বিয়ের কথা বললেই সে টালবাহানা করতে থাকে। লোকমুখে জানতে পারি বুধবার তাকে মেয়ে পক্ষ তাকে দেখতে আসবে। এরপর তাকে বার বার মোবাইলে কল করলেও সে রিসিভ না করায় আমি তার বাড়ীতে অবস্থান করছি। জুই বিয়ের দাবীতে ইউপি সদস্য বাবুর বাড়ীতে আসার পর থেকেই বাবু গা ঢাকা দেয়। জুই বলেন, যখন আমি তাদের বাসায় যখন আসি তখন বাবু বাসায় ছিল। আমাকে দেখে সে বাড়ী থেকে পালিয়ে যায়। এদিকে ওই ঘটনায় প্রেমিক তিতাস রহমান বাবুর বাবা মশিয়ার রহমান বাদী হয়ে গতকাল ১৭ নভেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় তার ছেলের প্রেমিকা জোবায়দা আবেদীন জুঁই কে আসামী করে ৪৪৮/৫০৬(২) ধারায় ডোমার থানায় একটি মামলা দায়ের করে। মামলা নং- ০৯, তারিখ-১৭/১১/২০১৬। এ ব্যাপারে ডোমার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আহম্মেদ রাজিউর রহমান জানান, জুই একটি বাড়ীতে গিয়ে আত্বহত্যার ভয়ভীতি প্রদর্শন করে হুমকি প্রদর্শন করছিলেন এমন একটি অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে আটক করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 60 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ