রাজধানীর রামপুরা উলন রোডে সমৃদ্ধ ছাদ-কৃষি গড়ে তুলেছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তা মুশহেদা খানম রেনু। সবজি ও ফুল-ফলের পাশাপাশি দেশি বিদেশি গাছের চারাও তৈরি করছেন তিনি। ব্যবহার করছেন নানা কারিগরী কৌশল ও প্রযুক্তি।

বাংলাদেশ ব্যাংকের পালন করেন ব্যস্ততম দায়িত্ব। তারপরও অবসর সময়টি কর্মমুখর থাকেন মুশহেদা খানম রেনু। ছাদ-ফসল আর ফুল ফলের প্রতি আলাদা রকমের টান, তাই মনের সৃজনশীল অংশটুকু তিনি কাজে লাগান ছাদ-কৃষিতে।garden-rampura1

কৃষিতে শেখার শেষ নেই। গাছ ও ফসলের কাছ থেকেও জানা যায় অনেক কিছু। এভাবেই মুশহেদা খানম শিখেছেন গ্রাফটিং পদ্ধতির চারা উৎপাদন। যা বাণিজ্যিকভাবে বেশ লাভজনক।

ছাদকৃষি উদ্যোক্তা  মুশহেদা খানম রেনু নানা প্রযুক্তি ও কৌশল প্রয়োগ করে এই ছাদ-কৃষিকে করে তুলেছেন বাড়তি আয়ের ক্ষেত্র। তবে কিছু সহযোগিতা করেন মুশহেদার স্বামী রিয়াজুল ইসলাম। তার মন্তব্য, সৌখিন কৃষিকাজে পরামর্শকের বড় অভাব।

ইতোমধ্যে রাজধানীতে গড়ে উঠেছে একাধিক ছাদ-কৃষি সহায়ক প্রতিষ্ঠান। যারা উদ্যোক্তাদের কাছে পৌছে দিচ্ছেন অনেক কিছু।  মুশহেদা খানম রেনুর মতো পেশাজীবী উদ্যোক্তারা প্রমাণ করেছেন, সৌখিন ছাদকৃষি থেকে বাণিজ্যিক লাভের কাছে পৌঁছতে খুব বেশি দিন লাগে না।