মাসে দুই লাখ টাকা বৃত্তি দিচ্ছে ফ্রান্স

Print

%e0%a6%ae%e0%a6%be%e0%a6%b8%e0%a7%87-%e0%a6%a6%e0%a7%81%e0%a6%87-%e0%a6%b2%e0%a6%be%e0%a6%96-%e0%a6%9f%e0%a6%be%e0%a6%95%e0%a6%be-%e0%a6%ac%e0%a7%83%e0%a6%a4%e0%a7%8d%e0%a6%a4%e0%a6%bf-%e0%a6%a6ফ্রান্স সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পরিচালিত শিক্ষাবৃত্তি ‘দি আইফেল এক্সিলেন্স স্কলারশিপ প্রোগ্রাম’। বিশ্বে বিভিন্ন প্রান্তের শিক্ষার্থীদের এই বৃত্তির সুযোগ দেওয়া হয়। এই বৃত্তির আওতায় ফ্রান্সের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ১২ থেকে ৩৬ মাসের স্নাতকোত্তর ও ১০ মাসের পিএইচডি ডিগ্রির সুযোগ দেওয়া হয়।
এই বৃত্তির ২০১৭-২০১৮ শিক্ষাবর্ষের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশিত হয়েছে। বৃত্তির অধীনে তিনটি বিষয়ে পড়ার সুযোগ পাবেন শিক্ষার্থীরা। বিষয়গুলো হলো- ইঞ্জিনিয়ারিং, ইকোনমিকস অ্যান্ড ম্যানেজমেন্ট ও ল’ অ্যান্ড পলিটিক্যাল সায়েন্স।
নির্বাচিত শিক্ষার্থীরা বেশ আকর্ষণীয় বৃত্তি পাবেন। একজন স্নাতকোত্তর শিক্ষার্থীকে বিভিন্ন খরচ ও ভাতা মিলিয়ে প্রতি মাসে দেওয়া হবে দুই লাখ টাকা (দুই হাজার ৩৬২ ইউরো)। পিএইচডি শিক্ষার্থীরা প্রতি মাসে পাবেন এক লাখ ১৮ হাজার টাকা (এক হাজার ৪০০ ইউরো)। তবে পড়াশোনার কোনো খরচ এই বৃত্তি থেকে দেওয়া হবে না।
বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন বিশ্বের যে কোনো দেশের শিক্ষার্থীরা। স্নাতকোত্তর পর্যায়ে আবেদনের জন্য শিক্ষার্থীদের বয়স অনূর্ধ্ব ৩০ বছর এবং পিএইচডি পর্যায়ে আবেদনের জন্য বয়স অনূর্ধ্ব ৩৫ বছর হতে হবে।
একবার এই বৃত্তির সুবিধা ভোগ করলে দ্বিতীয়বার আর আবেদন করা যাবে না। এ ছাড়া স্নাতকোত্তর পর্যায়ে আবেদন করে একবার প্রত্যাখ্যাত হলে আর আবেদন করা যাবে না।
আগ্রহী শিক্ষার্থীরা বৃত্তির জন্য আবেদন করতে পারবেন ৬ জানুয়ারি, ২০১৭ তারিখ পর্যন্ত। তবে শিক্ষার্থীরা সরাসরি আবেদন করতে পারবেন না। ফ্রান্সের উচ্চতর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর মাধ্যমে আবেদনপত্র জমা দিতে হবে। আবেদনের জন্য এসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন মান পূরণ করতে হবে। তারা শিক্ষার্থীকে যোগ্য বিবেচনা করলে বৃত্তির জন্য নির্বাচন করবে।
‘দি আইফেল এক্সিলেন্স স্কলারশিপ প্রোগ্রাম’ সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে (www.campusfrance.org/sites/default/files/vademecum_eiffel_2017_uk.pdf) ঠিকানায়।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 75 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ