যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে ব্যাপক বিক্ষোভ

Print

%e0%a6%af%e0%a7%81%e0%a6%95%e0%a7%8d%e0%a6%a4%e0%a6%b0%e0%a6%be%e0%a6%b7%e0%a7%8d%e0%a6%9f%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%9c%e0%a7%81%e0%a7%9c%e0%a7%87-%e0%a6%ac%e0%a7%8d%e0%a6%af%e0%a6%be%e0%a6%aa%e0%a6%95প্রতি কর্মঘণ্টায় ন্যূনতম মজুরি ১৫ ডলারের দাবিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাপক বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় চারজন নির্বাচিত প্রতিনিধিসহ কয়েকশ’ বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করে পুলিশ। নিউইয়র্ক, শিকাগো, লস অ্যাঞ্জেলেসসহ ৩৪০টি শহর ও ২০টি বিমানবন্দরে এ বিক্ষোভ অনুষ্ঠিত হয়। ফাইট ফর ফিফটিন ডলার নামে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক একটি আন্তর্জাতিক সংগঠন এ বিক্ষোভের ডাক দেয়।
বিক্ষোভ আয়োজনকারীদের দাবি, প্রান্তিক পর্যায়ে কাজ করা শ্রমিকদের মজুরি প্রতি কর্মঘণ্টায় ন্যূনতম ১৫ ডলার করা হোক এবং অধিকতর শ্রমিক ইউনিয়নের অধিকার দেয়া হোক। ২০১২ সালে ন্যূনতম মজুরি ঘণ্টায় ১৫ ডলারের দাবিতে আন্দোলন শুরু হয়। সেই থেকে এ পর্যন্ত আন্দোলনের মধ্যে গত মঙ্গলবারের আন্দোলন ছিল সবচেয়ে ব্যাপক। যুক্তরাষ্ট্রের অর্ধেকের বেশি কর্মজীবী জাতীয় পর্যায়ে ঘণ্টায় ন্যূনতম ৭ দশমিক ২৫ ডলারের বেশি মজুরি পেয়ে থাকেন। তবে কেউই ১৫ ডলার পান না। তবে সরকারের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এর সমর্থনে একটি বিল আনেন। বিমান পরিবহন, রেস্টুরেন্ট, স্বাস্থ্য খাতসহ বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের কর্মজীবীরাও মঙ্গলবারের বিক্ষোভে অংশ নেন। শিকাগোতে হয় সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ।

ম্যাকডোনাল্ডের একটি রেস্টুরেন্ট, একটি বড় হাসপাতাল এবং ও’হারে বিমানবন্দরের সামনে বিক্ষোভে অংশ নেয় কয়েক হাজার মানুষ। ফাইট ফর ফিফটিন আন্দোলনের শিকাগো চ্যাপ্টারের এক সদস্য নাম না প্রকাশের শর্তে জানিয়েছেন, ম্যাকডোনাল্ডের কাছে একটি এলাকা অবরোধ করলে পুলিশ কমপক্ষে ৬০ জন বিক্ষোভকারীকে গ্রেফতার করে। ফাইট ফর ফিফটিন আন্দোলনের সমর্থনে নিউইয়র্কে বিক্ষোভ আয়োজন করে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে বড় সার্ভিস ইন্ডাস্ট্রি ইউনিয়ন ৩২বিজে। এ বিক্ষোভ থেকে কয়েক ডজন লোককে গ্রেফতার করা হয়, যার মধ্যে চারজন নির্বাচিত প্রতিনিধিও রয়েছেন।
প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের অর্ধেকের বেশি কর্মজীবী জাতীয় পর্যায়ে নির্ধারিত ঘণ্টায় ন্যূনতম ৭ দশমিক ২৫ ডলারের বেশি মজুরি পেয়ে থাকেন। তবে কেউই ১৫ ডলার পান না। বিমান পরিবহন, রেস্টুরেন্ট, স্বাস্থ্যখাতসহ বিশ্ববিদ্যালয় ও কলেজের কর্মজীবীরাও গত মঙ্গলবার বিক্ষোভে অংশ নেন। শিকাগোতে হয় সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ। ম্যাকডোনাল্ডের একটি রেস্টুরেন্ট, একটি বড় হাসপাতাল এবং ওহারে বিমানবন্দরের সামনে বিক্ষোভে অংশ নেয় কয়েক হাজার মানুষ।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 76 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ