রাস্তাঘাট নির্মাণে অত্যাধুনিক যন্ত্র এনেছে সাঈদ খোকন

Print

শনিবার রাজধানীর পলাশী এলাকায় এ যন্ত্রের সাহায্যে সড়ক উন্নয়ন কাজ উদ্বোধন করে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের মেয়র সাঈদ খোকন।

c572503

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সাঈদ খোকন বলেন, এ যন্ত্রের সাহায্যে রাস্তাঘাটের উন্নয়নকাজের খরচ ৪০ থেকে ৪৫ ভাগ কমে যাযন্বেত্র। এটি সড়ক নির্মাণের একটি অত্যাধুনিক পদ্ধতি।

“যে রাস্তাটি বানাতে ১ কোটি টাকা লাগতো, সেটি সর্বোচ্চ ৬০ লাখ টাকায় আমরা বানাতে পারব। এখানে আমাদের একটা হিউজ কস্ট সেভ হচ্ছে।”

বছরের পর বছর ধরে সড়কের উন্নয়নকাজ করার ফলে সড়কের উচ্চতা আস্তে আস্তে বেড়ে যায়। পাশে যে বাড়িঘর থাকে বৃষ্টির পানি সেসব বাড়িতে ঢুকে পড়ে।

এ পদ্ধতিতে রাস্তা কেটে নতুন করে দেওয়া হবে বলে সড়কের উচ্চতা বাড়বে না বলে জানান মেয়র।

‘কোল্ড রি-সাইক্লিং অ্যাসফল্ট প্ল‌্যান্ট’ থেকে কোনো কার্বন নিঃসরণ হবে না। এটি থেকে কোনো ধুলোবালি ও ধোঁয়া নির্গত হবে না বলেও দাবি করেন মেয়র।

“এটি কার্বন ইমিশন প্রায় ৯০ ভাগ রিডিউস করে। একারণে এটা পরিবেশবান্ধব।”

cat_pm200_5

বাংলাদেশে সড়ক নির্মাণে এ ধরনের যন্ত্র এটিই প্রথম জানিয়ে সাঈদ খোকন বলেন, অন্য সিটি করপোরেশন বা সড়ক নির্মাণে যুক্ত সরকারি সংস্থা তাদের এ প্ল‌্যান্ট ব্যবহার কররতে চাইলে সহযোগিতা করবেন তারা।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন জানায়, ক্যাটারপিলার ব্র্যান্ডের কোল্ড মিলিং মেশিনটি ইতালিতে তৈরি। এটি প্রায় ১৩ ইঞ্চি গভীর এবং প্রায় ৭ ফুট অ্যাসফল্টের আস্তরণ কাটতে পারে। প্রতি ঘণ্টায় কাটতে পারে ৭ হাজার ৫০০ ফুট রাস্তা।

স্বয়ংক্রিয় কোল্ড রি-সাইক্লিং অ্যাসফল্ট প্ল্যান্ট তৈরি করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার ডিএমআই কোম্পানি। এটি ঘণ্টায় ১২০ টন অ্যাসফল্ট তৈরি করতে সক্ষম বলে জানান সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা।

তারা বলছেন, এ যন্ত্রের সাহায্যে ক্ষতিগ্রস্ত বা উঁচু হয়ে যাওয়া সড়ক কাটা হবে। কেটে নেয়া সড়কের এ উপাদানগুলো রি-সাইক্লিং প্ল্যান্টে নিয়ে সেগুলো পুনরায় ব্যবহার উপযোগী করা হবে। এর ফলে সড়ক থেকে তুলে নেওয়া উপকরণগুলোর ৪০ শতাংশ ব্যবহার করা যাবে।

এ পদ্ধতিতে ১ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের ১২ ফুট প্রশস্ত একটি সড়কের পুরাতন কার্পেটিং তুলে নতুনভাবে কার্পেটিংয়ে সর্বোচ্চ ৮ ঘণ্টা সময় লাগবে বলে জানান কর্মকর্তারা।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 123 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ