শ্বেতির সাদা দাগ, যে উপায়ে ২ সপ্তাহে হবে দূর!

Print
ফর্সা সুন্দর মুখে সাদা শ্বেতির দাগ ত্বকের একটি সাধারণ রোগ। শ্বেতির সাদা দাগ দূর করা বেশ কঠিন। এ রোগে আক্রান্ত রোগীরা বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন, এটা   আত্মবিশ্বাসও কমিয়ে দেয় কয়েকগুণ।

ত্বক সাদা হয়ে যাওয়াকে ভিটিলিগো বলে। হাত, পা, মুখ, ঠোঁট, চোখের চারপাশসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে এটি হতে পারে।

যেকোন বয়সের মানুষেরই ভিটিলিগো বা শ্বেতি হওয়ার আশংকা থাকে, তবে গাড় ত্বকের মানুষদের হওয়ার প্রবণতা বেশি দেখা যায়। ত্বকের এই সমস্যাটি মৃত্যু রোগ নয় এবং ছোঁয়াচেও না।

তবে চিকিৎসকের কাছে এ সমস্যা নিয়ে গেলে দ্রুত সমাধান পাওয়া যায় না, এমনটাই অভিযোগ করেছেন অনেকে। এ রোগ থেকে সহজে মুক্তির উপায়ও খুঁজছেন তারা।

চিকিৎসকদের মতে, অটোইমিউন ডিজঅর্ডারের কারণে এমন হতে পারে। যার ফলে ইমিউন সিস্টেম নিজেই মেলানিন উৎপন্নকারী কোষকে অর্থাৎ মেলানোসাইটকে আক্রমণ করে। জিনগত প্রবণতা, স্ট্রেস, ভিটামিন বি-১২ এর ঘাটতি ও সূর্যরশ্মির প্রভাবে এমনটা হতে পারে। এছাড়াও ছত্রাকের সংক্রমণ, একজিমা, সোরিয়াসিস ও ত্বকের অন্য সমস্যাও এরজন্য দায়ী হতে পারে।

শ্বেতির চিকিৎসায় ফটোক্যামোথেরাপি, লাইট থেরাপি, লেজার থেরাপি, স্কিন গ্রাফটিং, ব্লিস্টার গ্রাফটিং এবং মাইক্রোপিগমেন্টেশন করা হয়। এই সবগুলো পদ্ধতি কেমিক্যাল ও সার্জিকেল ট্রিটমেন্ট যা বেদনাদায়ক ও ব্যয়বহুল।

কি চিন্তায় পড়ে গেলেন? সহজে কীভাবে এ রোগ থেকে মুক্তি পাবেন এর উপায় খুঁজছেন! জি হ্যাঁ আপনাকেই বলছি? কিছু প্রাকৃতিক উপাদানের মাধ্যমেও এই রোগটির মোকাবিলা করা যায়!

আসুন জেনে নিই কী সেই উপাদান যার মাধ্যমে মাত্র দুই সপ্তাহের মধ্যে এ রোগ কমতে শুরু করবে :

আদা : রক্ত সংবহনের উন্নতি ঘটায় আদা। এটি মেলানিনের নিঃসরণকেও উদ্দীপিত হতে সাহায্য করে। শ্বেতি দাগের স্থানে আদার একটি টুকরা নিয়ে ঘষুণ বা আদা থেঁতলে নিয়ে আদার রস কিছুক্ষণ লাগিয়ে রাখুন। দেখবেন দুই সপ্তাহের মধ্যে দাগ কেমন হালকা
নারিকেল তেল : ছত্রাক, ব্যাকটেরিয়া ও ইনফ্লামেশনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করতে পারে নারিকেল তেল। এর পাশাপাশি মেলানিনের গঠনেও সাহায্য করে এই তেল। দুই সপ্তাহ দিনে ২-৩ দিন ব্যবহার করে দেখুন উন্নতি দেখতে পাবেন।

কপার : কপার মেলানিনের উৎপাদন বৃদ্ধিতে সাহায্য করে। তামার পাত্রে পানি সারারাত সাধারণ তাপমাত্রায় রাখুন। সকালে খালি পেটে এই পানিটুকু পান করুন। মেলানিনের উৎপাদন বৃদ্ধি করার জন্য রোজ এই পানি পান করুন।

লাল মাটি : লাল মাটিতে উচ্চমাত্রার কপার থাকে। আদার রসের সঙ্গে লাল মাটি মিশিয়ে শ্বেতি দাগের ওপর লাগান। এতে অবশ্যই আপনি ভালো ফলাফল পাবেন।

নিম : কয়েকটি নিম পাতা থেঁতলে নিয়ে ঘোলের সঙ্গে মেশান। এই মিশ্রণটি ত্বকের সাদা হয়ে যাওয়া অংশে লাগিয়ে কিছুক্ষণ রেখে দিন। শুকিয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন। প্রতিদিন এটি ব্যবহার করুন। দুই সপ্তাহের মধ্যে পরিবর্তন দেখতে পাবেন।

খাবার : ভিটামিন বি ১২, ফলিক এসিড ও জিংক সমৃদ্ধ খাবার খান। এতে দ্রুত উপকার পাওয়া যায়।

সাবধানতা : যাদের শ্বেতি রোগ আছে তারা জাম জাতীয় ফল এড়িয়ে চলবেন। কারণ এই ধরণের ফলে হাইড্রোকুইনন থাকে যা প্রাকৃতিক রঞ্জকরোধী উপাদান হিসেবে কাজ করে। এছাড়া রেড মিট ও সি ফুড খাবেন না।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 273 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ