৭০ অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গা আটক

Print

%e0%a7%ad%e0%a7%a6-%e0%a6%85%e0%a6%a8%e0%a7%81%e0%a6%aa%e0%a7%8d%e0%a6%b0%e0%a6%ac%e0%a7%87%e0%a6%b6%e0%a6%95%e0%a6%be%e0%a6%b0%e0%a7%80-%e0%a6%b0%e0%a7%8b%e0%a6%b9%e0%a6%bf%e0%a6%99%e0%a7%8d%e0%a6%97কক্সবাজারের উখিয়া ও টেকনাফে পৃথক অভিযানে ৪ দালালসহ ৭০ জন অনুপ্রবেশকারী রোহিঙ্গাকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার (২৩ নভেম্বর) সকালে উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের থাইংখালী এবং টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনচিপ্রাং এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়।
আটক দালালরা হলেন, উখিয়ার পালংখালী ইউনিয়নের থাইংখালী এলাকার অলি আহমদের ছেলে মোহাম্মদ সরওয়ার (১৮) ও কুতুপালং নিবন্ধিত শরণার্থী ক্যাম্পের বাসিন্দা নুর মোহাম্মদের ছেলে মোহাম্মদ রফিক (২৯), টেকনাফের হ্নীলা ইউনিয়নের জাদিমুরা এলাকার আব্দুল মোনাফের ছেলে ওসমান গণি (৩২) ও হোয়াইক্যং ইউনিয়নের লম্বাবিল এলাকার শাহ আলম (২৭)।
উখিয়া থানার ওসি মো. আবুল খায়ের বলেন, বুধবার ভোর রাত ও সকালে উখিয়ার থাইংখালী সীমান্ত দিয়ে বেশকিছু রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ করে ঝোপ-জঙ্গলে আত্মগোপন করে। খবর পেয়ে পুলিশ পালংখালীর থাইংখালী এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৬২ জন রোহিঙ্গা এবং ২ জন দালালকে আটক করা হয়েছে।
আটক রোহিঙ্গারা
ওসি বলেন, ‘টাকার বিনিময়ে আটক রোহিঙ্গাদের অনুপ্রবেশ করিয়ে নিয়ে আসে দালালরা। আটক দালালদের মধ্যে একজন নিবন্ধিত ক্যাম্পের রোহিঙ্গা শরণার্থীও রয়েছে।’
টেকনাফ থানার ওসি মো. আব্দুল মজিদ বলেন, বুধবার ভোর রাতে সীমান্তের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের উনচিপ্রাং এলাকা দিয়ে দালালদের সহযোগিতায় কয়েকজন রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ করেছে খবরে অভিযান চালানো হয়। এসময় একটি ঝুঁপড়ি ঘরে আত্মগোপন করা অবস্থায় ৮ জন রোহিঙ্গা এবং ২ জন দালালকে আটক করা হয়েছে।
উখিয়ায় আটককৃতদের মধ্যে ১৩ জন পুরুষ, ১৫ জন নারী ও ৩৪ জন শিশু রয়েছে। এদের প্রত্যেকের বাড়ি মিয়ানমারের আকিয়াব জেলার মংডু থানার জাম্বুনিয়া গ্রামে।

প্রতি মুহুর্তের সর্বশেষ খবর পেতে এখানে ক্লিক করে আমাদের ফেইসবুক পেইজে লাইক দিন

(লেখাটি পড়া হয়েছে 58 বার)


Print
এই পাতার আরও সংবাদ